পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিভিন্ন খাতে ব্যয় কমানোর নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য বরাদ্দ করা টাকা সঠিকভাবে ব্যবহারের বিষয়ে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এক সভায় এই নির্দেশনা দেওয়া হয়। গতকাল মঙ্গলবার ইউজিসি থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নির্দেশনা সম্পর্কে জানানো হয়।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গাড়ি কেনা বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া প্রকল্পের জন্য সম্মানী খাতে বরাদ্দ করা টাকা থেকে সভার জন্য সম্মানী বাবদ কোনো টাকা ব্যয় করা যাবে না।

এতে বলা হয়, জরুরি ও অপরিহার্য ক্ষেত্র বিবেচনায় আপ্যায়ন ব্যয়, অন্যান্য মনিহারি, কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক, বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম, আসবাব খাতে বরাদ্দ করা টাকার সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ ব্যয় করা যাবে। দেশের অভ্যন্তরে প্রশিক্ষণের ক্ষেত্রেও বরাদ্দ করা টাকার সর্বোচ্চ অর্ধেক ব্যয় করা যাবে। জ্বালানি খাতে বরাদ্দ করা টাকার সর্বোচ্চ ৮০ শতাংশ ব্যয় করা যাবে। আর বিদ্যুৎ খাতে বরাদ্দ করা টাকার ২৫ শতাংশ সাশ্রয় করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ব্যয় সংকোচনের বিষয়ে সরকারের জারি করা পরিপত্র অনুসরণ করে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলতি অর্থবছরের বাজেট যথাযথভাবে ব্যয় এবং বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনা করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে ইউজিসি। এতে প্রণয়ন করা ক্রয় পরিকল্পনা ৩১ জুলাই নির্ধারিত সফটওয়্যারের মাধ্যমে অনলাইনে আপলোড করতেও নির্দেশনা দেওয়া হয়।