জুলাই মাসের প্রায় পুরোটা সময়জুড়েই ঢাকাসহ সারাদেশে ছিল না বৃষ্টির আধিক্য। প্রখর তাপ আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবন হয়ে পড়ে বিপর্যস্ত। চলতি আগস্ট মাসে বৃষ্টি আশা করা হলেও এখনও নামেনি বর্ষা। মাঝেমধ্যে বৃষ্টি হলেও কমেনি গরম। মৌসুমি বায়ু কম সক্রিয় থাকায় এমন অবস্থা ছিল বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

গত জুলাই মাসের শুরুতে আবহাওয়া অধিদপ্তর বলেছিল, ওই মাসে বৃষ্টি অপেক্ষাকৃত কম হতে পারে। সেই পূর্বাভাস মিলেছে। তবে শুধু কম নয়, আবহাওয়াবিদরা বলেছেন- অবস্থা ছিল অস্বাভাবিক। জুলাইয়ে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টি হয়েছে প্রায় ৫৮ শতাংশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দেওয়া 'আগস্ট মাসের দীর্ঘমেয়াদি আবহাওয়ার পূর্বাভাস'-এ জুলাইয়ের বৃষ্টির হিসাব পাওয়া গেছে। এ ছাড়া আগস্টে স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদি বন্যার শঙ্কার পাশাপাশি সারাদেশেই বৃষ্টি বাড়ার পূর্বাভাসও দিয়েছে তারা।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চলতি আগস্টে বঙ্গোপসাগরে এক বা দুটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যার মধ্যে একটি মৌসুমি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। মাসের দ্বিতীয়ার্ধে দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে মৌসুমি ভারি বৃষ্টি হতে পারে। এর কারণে কিছু স্থানে স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদি বন্যা হতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের মাসিক পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।

জুলাইয়ে স্বাভাবিকের তুলনায় সবচেয়ে কম বৃষ্টি হয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগে। এ হার ছিল প্রায় ৬৮ শতাংশ। কম বৃষ্টি হওয়ার দিক থেকে এরপর আছে বরিশাল বিভাগ। এ হার ৬৪ দশমিক ৭ শতাংশ। দেশের আট বিভাগের মধ্যে স্বাভাবিক বৃষ্টি হয়েছে শুধু সিলেট বিভাগে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. আবুল কালাম মল্লিক বলেন, দেশের সবচেয়ে বৃষ্টিপ্রবণ এলাকা সিলেট। সেখানে গত মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপ্রবণ এলাকা চট্টগ্রামে সবচেয়ে কম বৃষ্টি হয়েছে। বাকি সব বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক কম বৃষ্টি হয়েছে। জুলাই বৃষ্টির মাস, কিন্তু গত মাসে এক অস্বাভাবিক অবস্থা দেখা গেছে।

এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ নিয়ে আমরাও ভাবছি, তবে শুধু বাংলাদেশে নয়; পাশের সব দেশ এবং বিশ্বের প্রায় সব জায়গায় জুলাই মাস ছিল উষ্ণ। জলবায়ু পরিবর্তন এবং প্রশান্ত ও ভারত মহাসাগরের বিশেষ কিছু পরিস্থিতির কারণে এ অবস্থা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে।

আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন জানান, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় রয়েছে। এর প্রভাবে গতকাল থেকে দেশের বেশ কিছু এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। এমন বৃষ্টিপাত টানা আরও দু'দিন অব্যাহত থাকতে পারে।