কারিগরি শিক্ষায় আন্তর্জাতিক মান নিশ্চিত করতে ডিপ্লোমা কোর্স ৪ বছরের পরিবর্তে ৩ বছর হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেছেন, যারা বেসরকারি পর্যায়ে প্রতিষ্ঠান চালান, তাদের জন্য চার বছর হলে সুবিধা। কিন্তু যে পড়া তিন বছরে পড়া সম্ভব, সেটিকে আরও একবছর টেনে চার বছর করা উচিত নয়।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শিশু কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

একই অনুষ্ঠানে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন তিনি। জাতীয় প্রেসক্লাব ও শেখ রাসেল শিশু সংসদ যৌথভাবে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সরকার কারিগরি শিক্ষায় সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে। কারিগরি শিক্ষায় যে ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে, এটাই তার প্রমাণ। সারা বিশ্বে কারিগরি শিক্ষায় যে মান অর্জনের চেষ্টা করা হয়, আমরা আমাদের দেশে তেমন মান নিয়ে আসার চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, চার বছর কোর্স করানোর কারণে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। এক বছরের টাকা বেশি দিতে হচ্ছে। আবার শিক্ষার্থীরাও এক বছর পরে কর্মক্ষেত্রে যাচ্ছে।

দীপু মনি বলেন, ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের পেশাজীবীরা অনেক সময় অনেক কিছু বলেন, তবে তাদের যে সংগঠন আছে তাদের সঙ্গে সরকার সবসময় অনেক ঘনিষ্ঠ। কাজেই আমাদের ডিপ্লোমা কোর্সগুলো তিন বছর হওয়া উচিত। এতে শুধু টাকা সাশ্রয় নয়, সবদিক দিয়ে আমাদের জন্য ভালো হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, ডিপ্লোমা কোর্স তিন বছর হলে আমাদের শুধু সময় কমছে তা নয়, মানেরও উন্নতি হবে। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশে অনার্স কোর্স আছে ৩ বছরের। সেখানে আমাদের দেশে ডিপ্লোমা কোর্স ৪ বছরের হওয়ার কোনো মানে নেই।