করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও দেশে লাহামহীনভাবে বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি মাসের প্রথম দুই সপ্তাহে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৯৯ জন। এসময় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৬ জনে মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে রোববার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে ভর্তি হয়েছেন ১১৬ জন। এ বছর এক দিনে এত বেশি ডেঙ্গু রোগী এর আগে হাসপাতালে ভর্তি হয়নি।

এদিকে ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে ঢাকায় রয়েছেন ৭০ জন। ঢাকার বাইরে বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন ৪৬ জন রোগী। আর ৩৭ জন কক্সবাজারের বাসিন্দা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, জানুয়ারিতে ১২৬ জনের দেহে ডেঙ্গু শনাক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বছর শুরু হয়েছে। জুনে সেটা ৭৩৭ জনে ওঠে। জুলাই মাসে সেটিই ১ হাজার ৫৭১ জনের গিয়ে দাঁড়ায়। আর আগস্টের প্রথম দুই সপ্তাহে সেই সংখ্যা ১ হাজার ৯৯ জনে গিয়ে পৌঁছেছে।

এদিকে চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩ হাজার ৭৫৯ জন। এসময়ের মধ্যে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বর্তমানে হাসপাতালে ৩৮৭ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন আছেন। এদের মধ্যে ঢাকার রোগী ৩১৪ জন। বাকি ৭৩ জন ঢাকার বাইরে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এখন পর্যন্ত মোট ৩ হাজার ৩৫৬ জন রোগীকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

গত বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ২৮ হাজার ৪২৯ জন। একই সময়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৮ হাজার ২৬৫ জন ও ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা যান ১০৫ জন।