বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির সুযোগ নিচ্ছেন এক শ্রেণির ব্যবসায়ী। পণ্যমূল্য যা বাড়ার কথা, তার চেয়ে অনেক বেশি বাড়িয়ে দিচ্ছেন তারা। সরকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য কাজ করছে।  আশা করা হচ্ছে ২/১ মাসের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে। তবে দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে, যা নিয়ন্ত্রণের বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

বুধবার টিসিবির ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে সাশ্রয়ী মূল্যে বিক্রি করা পণ্য নিয়ে টিআইবির অভিযোগকে কেন্দ্র করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে, তাতেই পরিবহন খরচ বাবদ চালের দাম ৫০ পয়সা বাড়তে পারে। কিন্তু সেটা ব্যবসায়ীরা কেজিতে ৪ টাকা পর্যন্ত বাড়িয়েছেন। একইভাবে অন্যান্য ক্ষেত্রেও দাম বেড়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, পণ্যমূল্য পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে টিসিবির কার্যক্রম অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন থেকে নিয়মিত প্রতি মাসে পণ্য সরবরাহ করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, টিসিবির পণ্য বিক্রি নিয়ে টিআইবি যে অভিযোগ করেছে, তা যথাযথ নয়। টিআইবি খুব সামান্য নমুনার ভিত্তিতে ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন,  টিআইবির তথ্য ও পর্যালোচনায় বড় ধরনের সমস্যা আছে।  এতে সত্যটা উবে গেছে। তিনি আরও বলেন, ত্রুটি নেই, সে কথা বলবো না। তবে সেটা ৫ শতাংশের বেশি না।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, টিসিবিকে আরও শক্তিশালী করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ,  টিসিবির চেয়ারম্যান আরিফুল হাসান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এএইচএম সফিকুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।