রাজধানীতে বাসচাপায় নিহত এক দোকানকর্মীর পরিবারকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকার আদালত। ঢাকার জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ এ এইচ এম হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া মঙ্গলবার এ রায় দেন। গতকাল বুধবার সংবাদটি প্রকাশ পায়।

ছয় বছর আগে সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসে চাপা পড়ে মারা যাওয়া এশিয়ান ইলেকট্রনিপ দোকানের কর্মচারী পিন্টু শেখের পরিবারকে এই ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে। বাসটির চালক সোহাগ মিয়া এবং মালিক নুরুল ইসলামকে এই জরিমানা করা হয়েছে। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন আইনজীবী বিমল সমাদ্দার। বাদীপক্ষে আইনজীবী এ কে এম ফয়জুল্লাহ টিটু মামলাটি পরিচালনা করেন।

ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, এ দেশের মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যুসহ গড় মৃত্যুর বয়স অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এ ক্ষেত্রে ৬৫ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকার দাবি কোনোভাবেই অস্বীকার করা যায় না। বরং এটি স্বাভাবিক ও সাধারণ হিসেবে বিবেচিত।

২০১৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর বাইসাইকেল চালিয়ে কাজে যাওয়ার সময় রামপুরার মালিবাগ চৌধুরীপাড়ার পেট্রোল পাম্পের কাছে সুপ্রভাত পরিবহনের বাসের চাপায় নিহত হন পিন্টু শেখ (২৮)। পরে ২০১৭ সালে ২ কোটি ৭৭ লাখ টাকার বেশি ক্ষতিপূরণের দাবি জানিয়ে পিন্টুর পরিবার একটি মামলা করে।