বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, সেচের জন্য নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত করতে হবে। আমন মৌসুমে সেচের জন্য রাত ১২টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত কৃষকদের নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার রাতে অনলাইনে ‘সেচ কার্যক্রমে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ’ সংক্রান্ত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাধীন এলাকায় অতিরিক্ত লোডশেডিং হচ্ছে, যা কাম্য নয়। বিদ্যুতের চাহিদা ও সরবরাহের সঙ্গে সমন্বয় রেখে সুষম বণ্টন নীতি অবলম্বন করা আবশ্যক। সেচ কার্যক্রম কোনো অবস্থাতেই ব্যাহত করা যাবে না। বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত কার্যক্রম সমন্বয়, তদারকি ও পরিবীক্ষণ কার্যক্রম জোরদার করতে হবে।

আমন মৌসুমে সাধারণত পর্যাপ্ত বৃষ্টি হয়ে থাকে। এ বছর চলতি আমন মৌসুমে পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাত না হওয়ায় কৃষি খাতে উৎপাদন অব্যাহত রাখার জন্য সেচযন্ত্রগলোর নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা প্রয়োজন। বিদ্যুৎ বিভাগের ছয়টি বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা বা কোম্পানির আওতায় বিদ্যমান সেচ সংযোগ রয়েছে চার লাখ ৬৪ হাজার ৩১টি এবং সবকটি সংযুক্ত থাকলে দুই হাজার ২২৮.৫০২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ লাগবে। আমন মৌসুম প্রায় শেষের দিকে। আর মাত্র ১০ থেকে ১৫ দিন বাকি রয়েছে। সব বিতরণ সংস্থা বা কোম্পানিতে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা এবং নিয়ন্ত্রণ কক্ষে ব্যবহৃত ফোন ও মোবাইল ফোন নম্বর ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ সংশ্লিষ্টদের অবহিত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভার্চুয়াল এই সভায় অন্যদের মধ্যে বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমান, পিডিবির চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুর রহমান, আরইবির চেয়ারম্যান মোহা. সেলিম উদ্দিন, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেনসহ অন্যান্য দপ্তর প্রধানরা বক্তব্য রাখেন।