রাজধানীর গোপীবাগে যুবলীগ নেতা আলমগীর হোসেনের কবজি কেটে নেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত ওমর আশরাফ ফারুককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১০। সোমবার রাতে ঢাকার মোহাম্মদপুরে এ অভিযান চালানো হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ঘটনায় সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছেন।

র‌্যাব-১০ এর সহকারী পুলিশ সুপার এনায়েত কবীর সোয়েব জানান, শনিবার রাতে গোপীবাগ এলাকায় আলমগীর হোসেনের ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। ওই সময় তাকে কুপিয়ে জখম করা হয়। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে বিচ্ছিন্ন হয় তার বাম হাতের কবজি। মারাত্মক আহত অবস্থায় প্রথমে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে তাঁকে স্থানান্তর করা হয় জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল (পঙ্গু হাসপাতাল) ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে।

র‌্যাবের এ কর্মকর্তা জানান, ওই ঘটনায় ওমর আশরাফ ফারুকসহ নয়জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরও দুই-তিনজনের বিরুদ্ধে ওয়ারী থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করা হয়। সেই মামলাটি ছায়াতদন্তের একপর্যায়ে ফারুককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।