সামিট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আজিজ খান প্রিয়দর্শনী একাডেমির ৩৮তম গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড-এ ভূষিত হয়েছেন। বাংলাদেশের অবকাঠামো খাতে অসামান্য অবদানের জন্য তিনি এই পুরস্কারে ভূষিত হন। ভারতের প্রাক্তন ফেডারেল মন্ত্রী এবং ঋষিহুড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা চ্যান্সেলর সুরেশ প্রভুর কাছ থেকে গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন আজিজ খান। এই পুরস্কার এশিয়ার নোবেল পুরস্কার হিসেবেও পরিচিত।

এর আগে বাংলাদেশ থেকে ব্র্যাক-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারপার্সন স্যার ফজলে হাসান আবেদ কেসিএমজি, দারিদ্র্য দূরীকরণ এবং দরিদ্রদের ক্ষমতায়নে অসামান্য অবদানের জন্য ‘৩০তম প্রিয়দর্শনী একাডেমির গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ভারতের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক মন্ত্রী নিতিন গডকড়ী, বস্ত্র, শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল, মহারাষ্ট্র বিধানসভার সদস্য স্পিকার রাহুল নারওয়েকর এবং অন্যান্য বিশিষ্ট  অতিথিবৃন্দ।

'২০২২ গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড’ বিজয়ী অন্যরা হলেন-  প্রিয়দর্শনী একাডেমির স্মিতা পাতিল মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন অভিনেত্রী আলিয়া ভাট, টেকসই উন্নয়নে অবদানের জন্য মেক্সিকোর রাষ্ট্রদূত প্যাট্রিসিয়া ই ক্যান্টেলানো পেয়েছেন রামকৃষ্ণ বাজাজ মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড। আরপি সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গ্রুপের চেয়ারম্যান ড. সঞ্জীব গোয়েঙ্কা, আন্তর্জাতিক ব্যবসা-উন্নয়নে অবদানের জন্য ডাইকিন এয়ারকন্ডিশনিং-এর চেয়ারম্যান ও এমডি কানওয়াল জিত জাওয়া, নারীর ক্ষমতায়ন এবং ধর্মীয়  অবদানের জন্য শ্রী বেদমাতা গায়ত্রী ট্রাস্টের ম্যানেজিং ট্রাস্টি শ্রদ্ধেয়া শৈলবালা পান্ড্য এবং ভিরিও গ্রুপের চেয়ারম্যান দারিও ওয়ারথেইন হরিশ মাহিন্দ্রা মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)