দেহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হৃদয়ের যত্নে বেশিরভাগ মানুষ অবহেলা করেন। এতে বেড়ে যায় রোগব্যাধি। সুস্থতার জন্যই হৃদয়ের যত্নে আরও যত্নশীল হতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ব হার্ট দিবস উপলক্ষে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের এক সেমিনারে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এ মতামত তুলে ধরেন।

'হৃদয় দিয়ে হৃদয়কে ভালোবাসুন, প্রকৃতি ও পরিবেশকে রক্ষা করুন'- প্রতিপাদ্যে দিবসটি পালনে প্রতিষ্ঠানটি নানা আয়োজন করে। এর মধ্যে সকালে মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করে। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে গণমুখী সেমিনার হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মকবুল হোসেন বলেন, হৃদয়ের যত্নে সচেতনতার পাশাপাশি আমাদের নিরাপদ খাদ্য ও নির্মল পরিবেশ নিশ্চিতে নজর দিতে হবে।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিকের সভাপতিত্বে সেমিনারে বক্তব্য দেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অসংক্রামক রোগবিষয়ক (এনসিডি) কর্মকর্তা ডা. সৈয়দ মাহফুজুল হক, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. সরোয়ার উদ্দিন মিলন প্রমুখ।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের রোগতত্ত্ব ও গবেষণা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সোহেল রেজা চৌধুরী।

এদিকে, গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এভারকেয়ার হাসপাতালের ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালট্যান্ট অধ্যাপক শাহাবউদ্দিন তালুকদার বলেন, হৃদয়ের সুস্থতা নিশ্চিত করতে হলে সবার নিয়মিত মেডিকেল চেকআপ করা উচিত।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ গতকাল দিবসটি পালনে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও একটি সেমিনার করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশু হৃদরোগ বিভাগ আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ সোসাইটি অব কার্ডিওভাসকুলার প্রিভেনশন ও পেডিয়াট্রিক কার্ডিয়াক সোসাইটি অব বাংলাদেশ পৃথক আয়োজনে দিবসটি পালন করেছে।