ফুটবলপ্রেমীদের জন্য স্বস্তির খবর। কাতারে বিশ্বকাপ উপভোগ করতে যাওয়া দর্শকদের জন্য করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক নয়। তবে খেলোয়াড় ও ম্যাচ অফিসিয়ালদের বায়োবাবলে রাখা হতে পারে। সেটা অবশ্য করোনা সংক্রমণের পরিমাণ যদি বেড়ে যায় তখন। কাতারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর জানিয়েছে। 

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে করোনাভাইরাসের আবির্ভাবের পর এটাই প্রথম গ্যালারি ভর্তি দর্শক নিয়ে কোনো ক্রীড়া আসর হতে যাচ্ছে। ২৯ দিনের টুর্নামেন্ট উপলক্ষে কাতারে ১ মিলিয়নের বেশি দর্শক সমাগম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

মহামারির ভয়াবহতা কাটিয়ে বিশ্বকাপ দিয়ে পৃথিবীকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে চায় ফিফা। তবে কাতার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিশ্বকাপের গাইডলাইনে উল্লেখ করে দিয়েছে, যে কোনো সময় বিধিনিষেধ আরোপ করা হতে পারে।

এছাড়া ১৮ বছরের বেশি বয়সী সব দর্শককে কাতারে নেমেই সরকার পরিচালিত ফোন অ্যাপ এহতেরাজ ডাউনলোড করতে হবে। সেই অ্যাপের মাধ্যমে তাদের নজরদারি করা হবে এবং স্বাস্থ্যের অবস্থা পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

ছয় বছর থেকে শুরু করে সব বয়সী অতিথি দর্শকদের বিমানবন্দরে নেমে ৪৮ ঘণ্টা আগের করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে হবে। পিসিআর টেস্ট বাদে অন্য কোনও রিপোর্ট গ্রহণযোগ্য হবে না। অথবা কাতারে নামার ২৪ ঘণ্টা আগে করা র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্টের রিপোর্টও গ্রহণ করা হবে, যদি পরীক্ষা করা হয় কোনও সরকারি মেডিক্যাল সেন্টার থেকে।