রাজধানীসহ দেশের বেশিরভাগ এলাকায় ঠান্ডা হাওয়ার দাপট বাড়ায় শীতের অনুভূতি তৈরি হচ্ছে। কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশাও রয়েছে। এর মধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ১২.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে শীত মৌসুম শুরু হওয়ায় রাজধানীসহ দেশের বেশিরভাগ শহরের বায়ুর মান প্রতিদিনই খারাপ থাকছে। ধুলা, ধোঁয়া আর কুয়াশায় শহরগুলোতে এখন ধোঁয়াশাচ্ছন্ন পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সন্ধ্যার পরপর শহরগুলোর বেশিরভাগ এলাকায় স্বাভাবিক দৃষ্টিসীমা ব্যাহত হচ্ছে।

বিশ্বের বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী আন্তর্জাতিক সংস্থা এয়ার ভিজ্যুয়ালের হিসাবে ঢাকার বায়ু গতকালও খুব অস্বাস্থ্যকর ছিল। বিশ্বের প্রধান ১০০ শহরের মধ্যে বায়ুর মানে খারাপের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল এ শহর।

আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, হিমালয়ের পাদদেশে উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের অবস্থান নভেম্বরের দ্বিতীয়ার্ধে খুবই শক্তিশালী হতে থাকে। এর প্রভাবে উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঠান্ডা হাওয়া বাংলাদেশের ভেতরে আসছে। এতে দেশের উত্তর-পূর্বাংশ থেকে মধ্যাঞ্চল পর্যন্ত রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমেছে।

তিনি আরও জানান, নভেম্বরে এমন আবহাওয়া বিরাজ করলেও স্বাভাবিকভাবে ডিসেম্বর থেকে শীতের শুরু হবে। তবে শিগগির মৃদু শৈত্যপ্রবাহের শঙ্কা নেই বলেও জানান তিনি।

ডিসেম্বরের মাঝামাঝি বা এর পরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কোথাও কোথাও কমে শৈত্যপ্রবাহের দিকে যেতে পারে বলে জানান তিনি।