এক ড্রয়ে বদলে গেল সব হিসাব। শুক্রবার রাতে ফেভারিট ইংল্যান্ড এক পয়েন্ট পায় যুক্তরাষ্ট্র থেকে। তাতেই জমে উঠেছে 'বি' গ্রুপের শেষ ষোলোতে যাওয়ার দৌড়টা। পয়েন্ট টেবিল দেখে বোঝা যাচ্ছে, চার দলের সামনেই এখন খোলা আছে নকআউটে যাওয়ার দুয়ার। একই সঙ্গে আবার ভুল করলে বাদের শঙ্কাও। এখন পর্যন্ত যতটুকু হিসাব-নিকাশ, তাতে এগিয়ে ইংল্যান্ড। দুই ম্যাচ থেকে তারা চার পয়েন্ট জমা করেছে। গোল ব্যবধানেও এগিয়ে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা।

বাকি আছে তাদের একটি ম্যাচ, যেখানে ২৯ নভেম্বর প্রতিপক্ষ ওয়েলস। ওই ম্যাচটিতে জিতলে কোনো রকম হিসাব ছাড়াই সোজা শেষ ষোলোতে চলে যাবে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা। ড্র করলেও টিকে থাকবে আশা। সে ক্ষেত্রে বাকিদের ম্যাচের ফলাফলের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে ইংল্যান্ডকে। আর ওয়েলস যদি ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দেয়, তাহলে তারাও চলে আসবে নকআউটে যাওয়ার দৌড়ে। ড্র করলে তাদের সম্ভাবনা নাই বললেই চলে।

দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ ষোলোতে যাওয়ার পথে এগিয়ে আছে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্র। দুই ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে এখন ইরান। আর দুই ম্যাচে ২ পয়েন্ট নিয়ে তিনে যুক্তরাষ্ট্র। দুই দলের গোল ব্যবধানও বেশি না। তবে আসল হিসাবটা হবে শেষ ম্যাচটায়। ২৯ নভেম্বর ইরান খেলবে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে। শক্তিমত্তায় নিঃসন্দেহে ইরানের চেয়ে এগিয়ে যুক্তরাষ্ট্র। সে ক্ষেত্রে ওই ম্যাচটিতে জিতলে চার পয়েন্ট নিয়ে পরের রাউন্ডে যাওয়ার সুযোগ থাকছে তাদের। তবে হারলে সেই টিকিট চলে যাবে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে। আর ড্র হলেও ইরানের সম্ভাবনা বেঁচে থাকবে।

যেহেতু চার দলেরই এখন সম্ভাবনা রয়েছে শেষ ষোলোতে যাওয়ার, তাই কোনো কারণে যদি দুই দলের পয়েন্ট সমান হয়ে যায়, তাহলে কীভাবে পরের রাউন্ডে ওই দু'দল থেকে একদল যাবে? ফিফার নিয়ম অনুযায়ী, গ্রুপ পর্বে প্রতিটি দল তিনটি করে ম্যাচ খেলবে। সেই ম্যাচগুলো শেষে দু'টি করে দল যাবে নকআউট পর্বে। যদি গ্রুপ পর্বের ম্যাচে কোনো দলের পয়েন্ট সমান হয়, তাহলে গোল পার্থক্যে এগিয়ে থাকা দল যাবে পরের পর্বে। সেটাও যদি সমান হয়, তাহলে যে দল বেশি গোল করেছে, সেই দল যাবে পরের পর্বে।

যদি তাও সমান হয়, তাহলে যে দু'দলের মধ্যে সমান পয়েন্ট, গোল পার্থক্য এবং গোল সংখ্যা রয়েছে- তাদের একে অপরের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের ম্যাচের পরিসংখ্যান দেখা হবে। তাতে যদি পয়েন্ট এবং গোল সমান হয়, তাহলে যে দল কম কার্ড দেখেছে, সেই দল যাবে পরের রাউন্ডে। সেটাও যদি সমান হয়, তাহলে ফিফার ক্রম তালিকায় যে দল এগিয়ে রয়েছে, সেই দল যাবে নকআউট পর্বে।