নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমে (এবিটি) অর্থায়ন ও প্রচারণার অভিযোগে এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের এন্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)। বুধবার দিবাগত রাতে রাজধানীর রামপুরার বনশ্রী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার মো. আবুল কাশেম আলফি (৬২) ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গার কামার গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। তিনি পেশায় একজন দন্ত চিকিৎসক। বর্তমানে তিনি রামপুরার বনশ্রীতে বসবাস করছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এন্টি টেরোরিজম ইউনিটের পুলিশ সুপার (মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস) মোহাম্মদ আসলাম খান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, আবুল কাশেম আলফি তার সহযোগীদের নিয়ে অনলাইনে জঙ্গিবাদ প্রচরণাসহ রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে বাংলাদেশে তথাকথিত খিলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার উদ্দেশে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন কার্যক্রম চালাচ্ছিলেন। তিনি নিষিদ্ধ সংগঠনের প্রচলিত বই নিজ উদ্যোগে ছাপিয়ে সহযোগীসহ অন্যান্যদের মধ্যে বিতরণ করতেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা রও বলেন, আবুল কাশেম আলফি সামাজিক যোগাযোগেরমাধ্যম ব্যবহার করে গ্রুপ খুলে উগ্রবাদী কন্টেন্ট প্রচার ও উগ্রবাদী বিভিন্ন বই পোস্ট করে আগ্রহীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষাসহ তাদের উগ্রবাদের উদ্বুদ্ধ করতেন। এছাড়া তিনি আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের প্রধান মুফতি জসীম উদ্দিন রাহমানীকে সমর্থন, সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা ও তার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অর্থায়ন করতেন। ২০২১ সালের ১৮ অক্টোবর মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনে দায়ের করা মামলার আসামি তিনি।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান বলেন, গ্রেপ্তারের সময় আবুল কাশেম আলফির কাছ থেকে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সেট ও ৩৭টি উগ্রবাদী বই জব্দ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।