বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) কেনাকাটার সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ ইউনিট হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড সেন্টার ইউনিটের সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট (সিইএমএসইউ)। এ ইউনিটের মাধ্যমে বিদেশ থেকে শত শত কোটি টাকার মালামাল ক্রয় করে বেবিচক। এসবের মধ্যে রয়েছে নিরাপদ উড়োজাহাজ চলাচলের ক্ষেত্রে রাডার সিষ্টেম থেকে শুরু করে বিমানবন্দরের যাবতীয় মালামাল। বেবিচকের সিইএমএসইউ ইউনিটে মন্ত্রণালয় থেকে প্রেষণে কোনো কর্মকর্তা পরিচালক হিসাবে একবার যোগদান করলে বদলির পরও সহসাই ছাড়তে চান না লোভীয় এ পদ বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

জানা যায়, সম্প্রতি বদলির আদেশের এক মাস পেরিয়ে গেলেও দায়িত্ব ছাড়তে টালবাহানা করছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড সেন্টার ইউনিটের সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট বিভাগের নির্বাহী পরিচালক মো. মহসিন। উল্টো নানা জায়গায় তদবির করে বদলি ঠেকানোর চেষ্টা করছেন। এরই মধ্যে তিনি স্বপরিবারে আমেরিকা সফর করেছেন। সম্প্রতি তার ওই পদে রেজাউল করিম নামে একজন যুগ্ম সচিব যোগদান করেছেন। কিন্তু এখনও তাকে দায়িত্ব বুঝে দেননি মহসিন। অভিযোগ উঠেছে, বেবিচকের এ পদে 'মধুর ভাণ্ডার' থাকার কারণে ওই কর্মকর্তাকে দায়িত্ব বুঝে দিচ্ছেন না মহসিন।

কর্মকর্তারা জানান, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন কেনাকাটার গুরুত্বপুর্ণ শাখা হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড সেন্টার ইউনিট। নিরাপদ উড়োজাহাজ চলাচলে রাডার সিষ্টেম থেকে শুরু করে ঢাকাসহ বিভিন্ন বিমানবন্দরের জন্য শতশত কোটি টাকার যাবতীয় মালামাল এ শাখার মাধ্যমেই বিদেশ থেকে ক্রয় করা হয়। প্রায় দুই বছর হয় সরকারের জনপ্রশান মন্ত্রণালয় থেকে প্রেষণে বেবিচকের সিইএমএসইউ ইউনিটে পরিচালক হিসেবে কর্মরত আছেন উপ-সচিব মো. মহসিন। কিন্ত বদলির পরও কিভাবে তিনি এ পদে বহাল আছেন তা নিয়েও নানা প্রশ্ন উঠেছে।

বেবিচকের কয়েকজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে সমকালকে জানান, গত ৭ নভেম্বর তাকে বদলি করা হলেও এখন বহাল তবিয়তে আছেন তিনি। ১১ ডিসেম্বর বেবিচক থেকে বিদায় নিবেন তার বিরুদ্ধে এমন একটি চিঠি মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কিন্ত তিনি তা আমলে না নিয়ে বেবিচকের ওই পদে আর ১ দিন (১২ ডিসেম্বর-২২) অতিরিক্ত থাকার জন্য চেষ্টা করছেন। তারা আরও বলেন, কী মধু বেবিচকের এই সিইএমএসইউ ইউনিটে। যার ফলে তার এই পদে যোগদানের পরও রেজাউল করিমকে দায়িত্ব বুঝে দিতে টালবাহানা করছেন মহসিন।

এ ব্যাপারে কর্মকর্তা মহসিন সমকালকে বলেন, ‘আমি আগামী সপ্তাহে পদ বেবিচকের এ পদ ছেড়ে দেব।’ তিনি বলেন, ‘আমি যখন বিদেশে, তখন আমাকে বদলি করা হয়েছে।’