ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

হ্নীলা থেকে দমদমিয়ায় ‘বিশেষ টহল’

হ্নীলা থেকে দমদমিয়ায় ‘বিশেষ টহল’

টেকনাফের সীমান্তসংলগ্ন নাফ নদে সোমবার বিশেষ টহল দেয় বিজিবি সমকাল

 সাহাদাত হোসেন পরশ, ঢাকা ও আব্দুর রহমান, টেকনাফ  

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ০০:৫৩ | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১১:৫৮

মিয়ানমারে ধারাবাহিক সংঘাতের জের ধরে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। সীমান্তে বাড়ানো হয়েছে বিজিবি সদস্য। টহল ও সীমান্তরক্ষীদের চেকপোস্ট সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে। গতকাল সোমবার টেকনাফের দমদমিয়া থেকে হ্নীলা পর্যন্ত বিশেষ টহল দিয়েছে বিজিবি। নাফ নদের ১০ কিলোমিটারজুড়ে ছিল সতর্ক নজরদারি। এ সময় তারা চারটি হাই স্পিডবোট ব্যবহার করেছে।  

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. মহিউদ্দীন আহমেদ সমকালকে বলেন, নাফ নদ অতিক্রম করে যাতে মিয়ানমার থেকে একজন রোহিঙ্গাও বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করতে না পারে সেটা নিশ্চিত করতে অতিরিক্ত বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। সীমান্ত দিয়ে লোকজন অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে আমরা কাউকে ঢুকতে দিচ্ছি না। আজ পর্যন্ত ১৩৭ জনকে প্রতিহত করা হয়েছে। অন্য দিনের তুলনায় সোমবার সীমান্ত শান্ত ছিল।  

সোমবার সকাল থেকে দমদমিয়ার নাফ নদের সীমান্তে বিজিবির চারটি স্পিডবোট টহল দিয়ে যাচ্ছে। মিয়ানমার পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বাড়তি এই নজরদারি থাকবে। নাফ নদের দমদমিয়া থেকে হ্নীলা পর্যন্ত ১০ কিলোমিটারজুড়ে গতকাল দিনভর বিজিবি সতর্ক প্রহরায় ছিল। 

মিয়ানমারের মংডু থেকে ছোট ছোট ট্রলারে টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে কয়েকদিন ধরে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে অনেক রোহিঙ্গা। তবে একজন রোহিঙ্গাও যাতে সীমান্ত ডিঙাতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় বিজিবি ও কোস্টগার্ড। 

এদিকে মিয়ানমার সীমান্তের চলমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম সীমান্তের এসএসসি পরীক্ষাকেন্দ্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ওই কেন্দ্র স্থানান্তর করা হয়েছে ১ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। সোমবার দুপুরে বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. তোফায়েল ইসলাম। তিনি বলেন, সীমান্ত পরিস্থিতি এখন মোটামুটি শান্ত, তবে পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। তাই শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের নিরাপত্তা বিবেচনায় পরীক্ষাকেন্দ্রটি সরিয়ে নেওয়া  হয়েছে।  

এদিকে মিয়ানমারে অভ্যন্তরীণ সংঘাতের কারণে উখিয়া সীমান্ত দিয়ে অস্ত্রসহ বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করা ২২ রোহিঙ্গার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল দুপুরে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ শ্রীজ্ঞান তঞ্চঙ্গা তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।  ২৩ জনের মধ্যে একজন অসুস্থ থাকায় তাঁকে আদালতে আনা হয়নি। উখিয়ার পালংখালী সীমান্ত থেকে অস্ত্রসহ আটকের পর বিজিবির করা মামলায় ২৩ জনের ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেছিল পুলিশ। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উখিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাছির উদ্দিন মজুমদার জানান, গত ৯ ফেব্রুয়ারি রহমতের বিল সীমান্ত দিয়ে ২৩ রোহিঙ্গা অস্ত্রসহ অনুপ্রবেশ করলে বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়নের পালংখালী বিওপির নায়েব সুবেদার মো. শহিদুল ইসলাম তাদের আটকের পর মামলা করেন। 

ওই ২৩ রোহিঙ্গা হলেন– মো. হোসেন আহমদ, মো. রফিক, আয়াতুল্লাহ, মো. জুনাইদ, মো. হারুন, মো. কায়সার, মো. সাবের, ওসামা, ওমর ফারুক, মো. সাদেক, হারুন অর রশিদ, ইয়াসিন আরাফাত, মো. ইসমাইল, মো. রহিম, নজু মোল্লা, সৈয়দ উল্লাজ, হাফেজ আহমেদ, মো.  জোবায়ের, আব্দুল্লাহ, এনামুল হাসান, মো. রফিক, সৈয়দুল ইসলাম ও মো. আরমান। 

সেই লাশের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ 

উখিয়া সীমান্তে বালুখালীর একটি খাল থেকে উদ্ধার হওয়া লাশটি নোনাপানিতে কয়েক দিন পড়ে থাকায় ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম বলেন, এখন লাশের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন

×