ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এক্সাম 

‘টপ ইন দ্য ওয়ার্ল্ড’ পুরস্কার পেল ১৫ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী

‘টপ ইন দ্য ওয়ার্ল্ড’ পুরস্কার পেল ১৫ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী

.

সমকাল ডেস্ক

প্রকাশ: ০৭ মার্চ ২০২৪ | ২১:২৫

ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ ও কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশনের যৌথভাবে আয়োজিত আউটস্ট্যান্ডিং কেমব্রিজ লার্নার অ্যাওয়ার্ডস প্রোগ্রামে ‘টপ ইন দ্য ওয়ার্ল্ড’ পুরস্কার অর্জন করেছে ১৫ জন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী। ২০২৩ সালের জুনে অনুষ্ঠিত কেমব্রিজ পরীক্ষায় অসামান্য পারফরমেন্সের জন্য এ স্বীকৃতি পেল শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (৭ মার্চ) রাজধানী ঢাকার রেডিসন ব্লুতে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশন মোট ৬৭ জন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে ২০২৩ এর আউটস্ট্যান্ডিং কেমব্রিজ লার্নার অ্যাওয়ার্ডসের (ওসিএলএ) ৭৯টি পুরস্কারে ভূষিত করে।

বিশ্বজুড়ে সর্বোচ্চ পারফর্ম করা শিক্ষার্থীদেরই এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। প্রতিষ্ঠানটি গত ১৬০ বছর ধরেই এ আন্তর্জাতিক পরীক্ষা পরিচালনা করে আসছে এবং প্রতিবছর বিশ্বের ১০ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশনের কোর্স গ্রহণ করে।

টপ ইন দ্য ওয়ার্ল্ড, হাই অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড, টপ ইন কান্ট্রি ও বেস্ট অ্যাক্রস- চারটি ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার দেওয়া হয়। এর মধ্যে দেশের ১৫ জন শিক্ষার্থী টপ ইন দ্য ওয়ার্ল্ডের স্বীকৃতি লাভ করে। এই ১৫ জন বিজয়ীর মধ্যে ১১ জনই কেমব্রিজ ও লেভেল, কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এএস অ্যান্ড এ লেভেল এবং কেমব্রিজ আইজিসিএসই-এর বিষয়গুলোতে এ পুরস্কার লাভ করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার ম্যাট ক্যানেল। আরও ছিলেন কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটি প্রেস অ্যান্ড অ্যাসেসমেন্ট সাউথ এশিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক অরুণ রাজামনি, ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডিরেক্টর অব প্রোগ্রামস ডেভিড নক্স এক্সামস ডিরেক্টর ম্যাক্সিম রাইম্যান, কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশনের বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর শাহীন রেজা এবং ব্রিটিশ কাউন্সিলের এক্সামিনেশনসের ডিরেক্টর অপারেশনস জুনায়েদ আহমেদ ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ডিরেক্টর সারওয়াত রেজা।

ম্যাট ক্যানেল বলেন, আন্তর্জাতিক শিক্ষায় বিনিয়োগ এবং বাংলাদেশে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা গ্রহণের সুযোগ তৈরি করে দেওয়ার জন্য আমি কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনালকে সাধুবাদ জানাই। তাদের এ উদ্যোগ বাংলাদেশে সম্ভাবনাময় ও বৈচিত্র্যময় ভবিষ্যৎ গঠনে ভূমিকা রাখছে। শিক্ষার্থীদের জন্য বৈশ্বিক অনেক সুযোগ রয়েছে এবং যুক্তরাজ্যে বিশ্বের মধ্যে সেরা শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে। আমাদের কিছু বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান, ব্যবসা, একাডেমিয়া এবং সামাজিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে শিক্ষা গ্রহণের জন্য স্বনামধন্য।

তিনি বলেন, পৃথিবী দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে, আবার একইসাথে বিশ্বজুড়ে উল্লেখযোগ্য কিছু সঙ্কটও তৈরি হয়েছে। মেধাবী শিক্ষার্থীদের প্রতি আমি বলতে চাই, আপনাদের দক্ষতাই এ সঙ্কটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভূমিকা রাখবে। আপনাদের প্রতি আমার শুভকামনা রইলো। আপনারা আত্মবিশ্বাসের সাথে এগিয়ে যান, নিজেদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করুন।

অরুণ রাজামনি বলেন, বিজয়ীদের ধারাবাহিক প্রচেষ্টার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে অভিনন্দন জানাই। তাদের অসাধারণ সাফল্যে অত্যন্ত আনন্দিত আমরা। স্টেম-এ দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে তারা ইংরেজি, আর্ট অ্যান্ড ডিজাইন, অ্যাকাউন্টিং ও বাংলার মতো বিষয়গুলোতে অসামান্য ফলাফল অর্জন করেছে। শিক্ষার্থীদের দায়িত্বশীল, আত্মবিশ্বাসী, উদ্ভাবনী, সম্ভাবনাময় করে তুলতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ কেমব্রিজ এডুকেশন। শিক্ষার্জনের এই পুরো প্রক্রিয়া ও তাদের অসামান্য সাফল্যে সহায়তা করায় সকল শিক্ষক ও অভিভাবকের প্রতি আমাদের বিশেষ কৃতজ্ঞতা।

ম্যাক্সিম রাইম্যান বলেন, ২০২৩ সালের জুনে অনুষ্ঠিত কেমব্রিজ পরীক্ষায় অসামান্য পারফরমেন্স করা শিক্ষার্থীদের স্বীকৃতি দেওয়ার লক্ষ্যে কেমব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশনের সাথে যৌথভাবে এ আয়োজন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। বাংলাদেশ থেকে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী অসামান্য পারফরমেন্সের জন্য বিভিন্ন বিভাগে পুরস্কার অর্জন করেছে- এ জন্য আমরা গর্ববোধ করছি। ব্রিটিশ কাউন্সিল কেমব্রিজের মতো সমাদৃত প্রতিষ্ঠানকে পরীক্ষা গ্রহণ, শিক্ষক প্রশিক্ষণ এবং স্কুলের জন্য সর্বোত্তম অনুশীলন প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করে থাকে। এছাড়া আমরা উদ্ভাবনী এবং সহজে অনুকরণ করা যায়- এমন সমাধানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের তাদের সর্বোচ্চ সম্ভাবনা কাজে লাগাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকি।

আরও পড়ুন

×