বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ট্রলারে ডাকাতির ঘটনায় জলদস্যুরা ৯ জেলেকে সাগরে নিক্ষেপ করার পর তাদের উদ্ধারে কাজ করছে র‌্যাব ও কোস্টগার্ডের যৌথ বাহিনী।

শনিবার বেলা ১২টার সময় দুই বাহিনী (র‌্যাব ও কোস্টগার্ড) ১২ জন সদস্যসহ ১১ জেলেকে নিয়ে পাথরঘাটা থেকে স্পিডবোট ও একটি ট্রলার সাগরের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। তা ছাড়া কুয়াকাটা থেকে আরও দু’টি মাছ ধরার ট্রলার যৌথ বাহিনীকে সহযোগিতা করছে বলে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর ডিএডি মো. মহিদুল ইসলাম নিশ্চিত করেন।

নিখোঁজ জেলেরা হলেন, কাইউম জোমাদ্দার (৩৫) , ইয়াছিন জোমাদ্দার (৩২), আবুল কালাম (৫৮), শফিকুল মাঝি (৩৫), খাইরুল ইসলাম (৪০), আবদুল আলীম (৫৫), ফরিদ (৩৮), আবদুল হাই (৪০)। অপর এক জেলের নাম জানা যায়নি।

জানা গেছে, শনিবার গভীর রাতে বরগুনার পাথরঘাটা থেকে সাগরে মাছ ধরতে যাওয়ার পথে এফবি ভাই ভাই নামের একটি ট্রলার বঙ্গোপসাগরের সোনারচর এলাকায় ডাকাতি করেছে জলদস্যুরা। এ সময় ৯ জেলেকে সাগরে নিক্ষেপ করা হলে তারা নিখোঁজ হন।

বরিশাল র‌্যাব-৮ এর কোম্পানি অধিনায়ক এ এস পি তুহিন রেজা জানান, তারা ডাকাতির ঘটনায় আহত জেলেদের তদরকি করছেন। যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত তাদেরকে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন তারা। বর্তমানে নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারের জন্য তাদের একটি দল সাগরে পঠিয়েছেন বলেও জানান তিনি।