ঢাকা বুধবার, ২২ মে ২০২৪

খেলার মাঠে মার্কেট নির্মাণ বন্ধের দাবিতে জবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

খেলার মাঠে মার্কেট নির্মাণ বন্ধের দাবিতে জবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

খেলার মাঠে মার্কেট নির্মাণ বন্ধের দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সামনে মানববন্ধন করছেন শিক্ষার্থীরা- সমকাল

জবি প্রতিবেদক

প্রকাশ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ০৬:০৭ | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ০৭:২৮

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন  ডিএসসিসি) মার্কেট নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। মাঠে মার্কেট নির্মাণ বন্ধের দাবিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রধান ফটকের সামনে রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করেছেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা মাঠ রক্ষার দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের ঘোষণা দেন।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দাবি, সিটি করপোরেশনের মেয়র আশ্বাস দিলেও তাদের না জানিয়েই মাঠে খোঁড়াখুঁড়ি শুরু করে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। কাজ বন্ধ করতে আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ১৯৮৪ সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি শিক্ষার্থীদের খেলাধুলার নিজস্ব কোনো মাঠ না থাকায় ধূপখোলা খেলার মাঠটি তিন ভাগ করেন। এর মধ্যে এক ভাগ তৎকালীন সরকারি জগন্নাথ কলেজকে ব্যবহারের জন্য মৌখিকভাবে অনুমতি দেন। তখন থেকেই প্রতিষ্ঠানটির খেলার মাঠ হিসেবে ধূপখোলা মাঠটিকে ব্যবহার করছে। এই মাঠেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সহসভাপতি সুমাইয়া সোমা বলেন, আমাদের হলগুলো দখলদাররা দখল করে নিয়েছে। খেলার মাঠও তারা দখল করে নিচ্ছে। প্রশাসন যদি আমাদের দাবি না মানে তাহলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় হল আন্দোলনের মতো আরেকটা আন্দোলন দেখবে।

নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী গাজী মুহাম্মদ শামসুল হুদা বলেন, এই ধূপখোলা মাঠের সঙ্গে আমাদের অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে। সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের প্রাণের স্পন্দন এই মাঠ। আমরা আমাদের খেলার মাঠকে রক্ষা করবো।

মাঠ আন্দোলনের আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ হস্তক্ষেপ করেছে। আমরা দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাব। রোববার ক্যাম্পাস থেকে বিক্ষোভ করে মাঠে যাব।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করবে তাদের ক্যাম্পাসে। রাস্তা অবরোধ করে বেআইনিভাবে আন্দোলন করলে পুলিশ তাদের দায়িত্ব পালন করবে। রাস্তায় আন্দোলন করে জনসাধারণের ভোগান্তি করা যাবে না।  

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোস্তফা কামাল বলেন, সবসময় শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে আমরা একমত পোষণ করি। মাঠকে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করেছি। 

আরও পড়ুন

×