মার্চের পর বিতরণ করা ঋণে সুদ স্থগিত নয়

প্রকাশ: ০৪ মে ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সঙ্কটের মধ্যে এপ্রিল ও মে মাসের সব ধরনের ঋণের সুদ আদায়ের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়ে রোববার একটি সার্কুলার জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর একদিন পর সোমবার অপর এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ৩১ মার্চভিত্তিক গ্রাহক পর্যায়ের ঋণের সুদ স্থগিত করতে হবে। মার্চের পর তথা ১ এপ্রিল থেকে বিতরণ বা উত্তোলন করা ঋণের ক্ষেত্রে সুদ স্থগিতের নির্দেশনা কার্যকর হবে না।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট ব্যবসায়িক পরিস্থিতি বিবেচনায় এপ্রিল ও মে মাসে ব্যাংকের সব ধরনের ঋণের সুদ 'সুদবিহীন ব্লকড হিসাবে' স্থানান্তর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত ব্লকড হিসাবে স্থানান্তরিত সুদ সংশ্লিষ্ট ঋণগ্রহীতার কাছ থেকে আদায় করা যাবে না। এ ধরনের সুদ ব্যাংকের আয়খাতেও স্থানান্তর করা যাবে না। এ নির্দেশনার বিষয়ে স্পষ্টীকরণ করা যাচ্ছে যে, ৩১ মার্চভিত্তিক গ্রাহক পর্যায়ের ঋণ স্থিতির ওপর ওই সার্কুলারের নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে। ১ এপ্রিল থেকে নতুনভাবে বিতরণ বা উত্তোলন করা ঋণের ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা সমকালকে বলেন, 'মার্চের পর অধিকাংশ ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধ ছিল। শুধু যাদের প্রতিষ্ঠান সচল ছিল তারা ঋণ নিয়েছেন। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বেশিরভাগ ক্ষেত্রে প্রণোদনার আওতায় ঋণ দেওয়া হচ্ছে। যে কারণে এ নির্দেশনা দেওয়া হলো।'