অবৈধ সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনে দুদকের করা মামলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক (বরখাস্ত) আব্দুল মালেকের স্ত্রী নার্গিস বেগমকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার ঢাকার জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন করেন নার্গিস বেগম।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগরের বিশেষ জজ কেএম ইমরুল কায়েশ জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

তার পক্ষে আইনজীবী শাহীনুর ইসলাম জামিন শুনানি করেন। দুদকের পক্ষে জামিনের বিরোধিতা করেন প্রসিকিউটর মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর।

গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে গাড়িচালক মালেককে আটক করে র‌্যাব। ওই দিনই তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা হয়। ওই মামলায় তাকে ৩০ বছরের সাজা দিয়েছেন আদালত। গ্রেপ্তারের সময় র‌্যাব জানিয়েছিল, তুরাগের দক্ষিণ কামারপাড়ায় দুটি সাততলা ভবন, একই এলাকায় একটি ডেইরি ফার্ম, ধানমন্ডির হাতিরপুলে সাড়ে ৪ কাঠা জমিতে একটি নির্মাণাধীন ১০ তলা ভবন ছাড়াও কলাবাগানসহ রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে কমপক্ষে ১৫টি ফ্ল্যাট রয়েছে মালেকের। এ ছাড়া বিভিন্ন ব্যাংকে বিপুল পরিমাণ অর্থও রয়েছে।