আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি আবারও তাদের সেই পুরোনো রূপে ফিরে এসেছে। তারা নতুন করে সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দিচ্ছে এবং এসব কাজে সহযোগিতা করছে।

শুক্রবার জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার নিজ সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন তিনি। 

আওয়ামী লীগ প্রতি মুহূর্তে দুঃস্বপ্ন দেখছে এই বুঝি বিএনপি এল- বিএনপি মহাসচিবের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির যে রঙিন খোয়াব, তা অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে। বিএনপিকে নিয়ে দুঃস্বপ্ন দেখার কোনো কারণ নেই। তারা গত এক যুগ ধরে নির্বাচন ও রাজপথে এমন কোনো সক্ষমতা দেখাতে পারেনি যে আওয়ামী লীগ দুঃস্বপ্ন দেখবে। ক্ষমতা দেওয়ার মালিক সর্বশক্তিমান আল্লাহ এবং এদেশের জনগণ। কাজেই দুঃস্বপ্ন বিএনপিই দেখছে।' 

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'বিএনপির শাসনামলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের জন্য প্রতিটি রাত ছিল দুঃস্বপ্নের। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জন্যও প্রতিটি রাত ছিল দুঃস্বপ্নের, এই বুঝি মন্দিরে, বাড়িঘরে হামলা হলো! 

তিনি আরও বলেন, 'বিএনপি নিজেদের শাসনামলে দেশে একটি মেগা প্রকল্প করার সাহস ও সক্ষমতা দেখাতে পারেনি, কিন্তু তারাই আজ মেগা প্রকল্প নিয়ে মেগা মিথ্যাচারে নেমেছে। যারা হাওয়া ভবন নামের খাওয়া ভবন তৈরি করে দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল, মেগা প্রকল্প দেখলে তাদের মনোযন্ত্রণা হওয়াই স্বাভাবিক। এটা প্রতিহিংসাপরায়ণ ও ব্যর্থ দল বিএনপির ঈর্ষাকাতরতা ছাড়া কিছুই নয়।' 

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'জাতীয় প্রেস ক্লাবে সভা-সমাবেশ করতে না দেওয়ার সিদ্ধান্তের বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব স্বভাবসুলভভাবে সরকারের ওপর দায় চাপানোর অপচেষ্টা করছেন। জাতীয় প্রেস ক্লাবের একটি ব্যবস্থাপনা কমিটি রয়েছে, তারা নীতিমালা অনুযায়ী হলরুম ভাড়া দেন, এটা তাদের নিজস্ব সিদ্ধান্ত। অথচ বিএনপির নেতারা সেখানেও সরকারের ওপর দোষ চাপাচ্ছেন। আসলে বিএনপির নেতারা অন্ধ বলেই সবকিছুতেই অন্ধকার দেখতে পান।' 

তিনি বলেন, 'দোষারোপের রাজনীতির দুষ্টচক্রে আবর্তিত হচ্ছে বিএনপি। এ থেকে তারা বের হতে পারছে না।'