ট্রলার ছিনতাইয়ের জন্য বাবা-ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে খুন করে তিন ঘাতক

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০২০     আপডেট: ০৭ জুলাই ২০২০   

বরিশাল ব্যুরো

বরিশাল পুলিশের সংবাদ সম্মেলন, ইনসেটে গ্রেপ্তার ঘাতকরা

বরিশাল পুলিশের সংবাদ সম্মেলন, ইনসেটে গ্রেপ্তার ঘাতকরা

আনুমানিক ৪ লাখ টাকা মূল্যের একটি ট্রলার ছিনতাই করার জন্য নির্মমভাবে খুন করা হয়েছে বাবা-ছেলেকে। রোববার ঢাকার কেরানীগঞ্জ তেলাঘাটে গ্রেপ্তার হওয়া তিন ঘাতক এই হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছেন। ছিনতাই করা ট্রলারটি বিক্রি করতে তারা সেখানে গিয়েছিলেন। 

মঙ্গলবার দুপুরে বরিশাল পুলিশ লাইন্সের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম। 

তিন ঘাতক হচ্ছেন- বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুবারচর গ্রামের বাদশা হাওলাদার (৩৮), একই উপজেলার গোমা এলাকার মো. শাহিন খাঁ (২৫) ও হানিফ হাওলাদার (১৭)। 

জেলা পুলিশ সুপার জানান, ওই তিনজনের মধ্যে বাদশা হাওলাদারের বিরুদ্ধে দুটি ডাকাতি মামলা রয়েছে। অপর দুজনের বিরুদ্ধে এর আগে কোনো অপরাধ করার প্রমাণ পাওয়া যায়নি। কিন্ত তারা পেশাদার খুনীদের মতো পরিকল্পিতভাবে বাবা-ছেলেকে খুন করে ট্রলার ছিনতাই করেছেন। খুনের শিকার ইয়াসিনের মোবাইল ফোন খুনীরা নিয়ে যাওয়ায় ওই ফোন ট্র্যাকিং করে তিন ঘাতকের অবস্থান পুলিশ নিশ্চিত হয়। 

হত্যার শিকার হেলাল উদ্দিন হাওলাদার (৫৫) ও তার ছেলে ইয়াসিন হাওলাদার (২০) পেশায় মাছ ধরার ‘চাই’ (বাশের কঞ্চি দিয়ে তৈরি) বিক্রেতা। তাদের বাড়ি পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার কলারদোয়ানিয়া গ্রামে। প্রত্যন্ত গ্রামের হাটে চাই বিক্রি করার জন্য বাবা-ছেলে মাসে ৯ হাজার চুক্তিতে ট্রলার ভাড়া করে বাকেরগঞ্জ উপজেলার কবাই এলাকায় গিয়েছিল। তারা গত শুক্রবার হত্যার শিকার হন। 

পুলিশ সুপার ইসলাম জানান, ট্রলারটি ছিনতাইয়ের টার্গেট করে ঘাতকরা ৪/৫ দিন আগে থেকে বাবা-ছেলের ওপর নজর রাখে। শুক্রবার দুপুরে কবাই ইউনিয়নের শতরাজ হাটে ঘাতকরা বাবা-ছেলের কাছ থেকে ৬০টি চাই কেনে। পরে ওই চাইগুলো তাদের নির্ধারিত স্থানে পৌঁছে দিতে বলে। চাই পৌঁছে দেওয়ার জন্য ঘাতকদের সঙ্গে নিয়ে তারা ট্রলারে রওনা হন। পাণ্ডব নদীর চরলক্ষীপাশা নামক দূর্গম স্থানে পৌঁছালে সেখানে ট্রলার থামাতে বলা হয়। চাইয়ের মূল্য বাবদ টাকা দেওয়ার কথা বলে ইয়াসিনকে দূরে ডেকে নিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। পরে বাবা হেলাল উদ্দিনকে পানিতে চুবিয়ে ও পেটে ছুরিকাঘাত করে তাকে হত্যা করে ঘাতকরা। পরে তিন ঘাতক ট্রলারটি বিক্রির জন্য ঢাকার কেরানীগঞ্জে নিয়ে যায়।

বিষয় : বরিশাল খুন