ভাণ্ডারিয়ায় মস্তকবিহীন ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

প্রকাশ: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০   

ভাণ্ডারিয়া (পিরোজপুর) সংবাদদাতা

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উদ্ধারকৃত মস্তকবিহীন অজ্ঞাত যুবকের পরিচয় মিলেছে। তার নাম আলতাফ হোসেন (৪০)। বুধবার রাতে নিহতের বোন খাদিজা বেগম এবং ভাই ফোরকান হাওলাদার মরদেহটি শনাক্ত করেন। নিহত আলতাফ হোসেন উপজেলার উত্তর পৈকখালী গ্রামের খালেক হাওলাদারের ছেলে।

নিহতের ভাই ফোরকান হাওলাদার জানান, আলতাফ তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে চট্টগ্রামে বসবাস করতেন। শুক্রবার তিনি পৈকখালী গ্রামে তার নিজ বাড়িতে আসেন। সোমবার প্রথম পক্ষের শ্বশুরবাড়ি থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার উদ্দেশে বের হবার পর তিনি নিখোঁজ হন।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একই গ্রামে আলতাফের দুই শ্বশুরবাড়ি। প্রথম পক্ষের স্ত্রীর চার ছেলে-মেয়ে রয়েছে। আলতাফ হত্যা, চুরি-ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। শুক্রবার তিনি ডাকাতিসহ একটি হত্যা মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে বাড়িতে আসেন। মরদেহ শনাক্তের পর পুলিশ নিহতের দুই শ্বশুর-শাশুড়িসহ মোট ৬ জনকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজির করেছে।

ভাণ্ডারিয়া থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) এস এম মাকসুদুর রহমান জানান, এ ঘটনায় ভাণ্ডরিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের মূল রহস্য উদঘাটন ও হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দুপুরে পৈকখালী গ্রামের ভারানী খালের কাওসার ফরাজির মসজিদের ঘাটের পাশে ভাসমান অবস্থায় এক ব্যক্তির মস্তকবিহীন মরদেহ উদ্ধার করে ভাণ্ডারিয়া থানা পুলিশ। মরদেহের বাম হাতের রগ কাটা, বিবস্ত্র এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল।