কাজের প্রয়োজনে রাস্তায় বের হতেই হয়। বাইরে বের হলে বায়ুদূষণ, ধূলাবালিতে চুল অপরিস্কার হওয়াটাই স্বাভাবিক। চিটচিটে চুলকে পরিষ্কার করে তুলতে ভরসা একমাত্র শ্যাম্পু। চুলের যত্ন নিতে শ্যাম্পু করবেন অথচ কন্ডিশনার লাগাবেন না, তা তো হয় না। এ কারণে অনেকেই শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার ব্যবহার করেন। কিন্তু প্রতিবার চুল ধোয়ার পরেই কি কন্ডিশনার ব্যবহার করা প্রয়োজন?

শ্যাম্পু চুলকে তেলমুক্ত করে। তার ফলে চুল দেখলে রুক্ষ মনে হয়। তাই কন্ডিশনার ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ, কন্ডিশনারে রয়েছে ময়শ্চারাইজার। যা চুলের শুষ্কতা দূর করে। আরও নরম, আরও মসৃণ করে তুলতে সাহায্য করে। এছাড়াও কন্ডিশনারের রয়েছে আরও নানা গুণ। চুলে কন্ডিশনার ব্যবহারে আরও কিছু উপকারিতা রয়েছে। যেমন-

শুষ্ক, রুক্ষ চুলে ডগা ফাটা সবচেয়ে বড় সমস্যা। সে সমস্যা প্রতিরোধে সাহায্য করে কন্ডিশনার। চুলের রুক্ষতা দূর করতে পারলে ডগা ফাটার সমস্যা থেকে রেহাই পেতে পারেন।

রুক্ষ চুলকে প্রাণ দিতে অপরিহার্য কন্ডিশনার। তাই শ্যাম্পু করার পর প্রতিবার কন্ডিশনার ব্যবহার করা প্রয়োজন।

প্রতিবার শ্যাম্পু করলে মাথায় ত্বক থেকে নিঃসৃত তৈলাক্তভাব দূর হয়। যার ফলে চুল সহজেই রুক্ষ, শুষ্ক হয়ে যায়। তাই শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার ব্যবহার করা প্রয়োজন। প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার ব্যবহার না করলে চুলের চিররুক্ষতার সমস্যা তৈরি হবে।

অনেকেই চুলে রং করেন। আবার কেউ কেউ ক্লোরিন মিশ্রিত পানিতে বহুক্ষণ সাঁতার কাটেন। এতেও চুল নষ্ট হয়ে যাওয়ার সমস্যা থাকে। চুলকে বাঁচাতে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। কারণ, চুলের সুরক্ষা বজায় রাখতে কন্ডিশনারের তুলনা নেই।

বিষয় : চুল পরিস্কার শ্যাম্পু ব্যবহার

মন্তব্য করুন