মালয়েশিয়ার নতুন নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিমকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। খবর বাসসের।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে লেখা অভিনন্দন বার্তায় শেখ হাসিনা বলেন, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করায় বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের এবং আমার পক্ষ থেকে আপনাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি।’

‘এই উচ্চ পদে আপনার নির্বাচন আপনার দেশের জন্য আপনার দূরদর্শী নেতৃত্ব, প্রজ্ঞা এবং দীর্ঘ সময়ের ত্যাগের প্রতি মালয়েশিয়ার জনগণের আস্থার সুস্পষ্ট বহিঃপ্রকাশ।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার দৃঢ় আস্থা রয়েছে যে, আপনার অনন্য সাধারণ নেতৃত্বে মালয়েশিয়া অব্যাহতভাবে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবে।’

শেখ হাসিনা উল্লেখ করেন, ২০২২ সাল বাংলাদেশ-মালয়েশিয়ার বন্ধুত্বের জন্য একটি বিশেষ বছর। কারণ, উভয় দেশ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন করছে।

তিনি কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন যে, ১৯৭২ সালে প্রথম মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ হিসেবে মালয়েশিয়া বাংলাদেশেকে স্বীকৃতি দিয়েছিল। এরপর থেকে দুই দেশ অভিন্ন বিশ্বাস, ভ্রাতৃত্ব এবং সহযোগিতার ভিত্তিতে চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উপভোগ করছে।

প্রধানমন্ত্রী গভীর সন্তোষের সঙ্গে উল্লেখ করেন, মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন খাতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশী নাগরিক কর্মরত রয়েছে এবং তারা দুই দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখছে।

তিনি বলেন, উভয় দেশ মানব সম্পদ, বাণিজ্য, বিনিয়োগ, শিক্ষা এবং পর্যটনের মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যাপক অংশীদারিত্বকে আরও সুসংহত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

শেখ হাসিনা আস্থা প্রকাশ করেন যে, আনোয়ার বিন ইব্রাহিমের গতিশীল নেতৃত্বে বিদ্যমান বহুমাত্রিক সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক, আঞ্চলিক এবং বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে পারস্পরিক কল্যাণে দু’দেশের স্বার্থে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিমের সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘ জীবন এবং ভ্রাতৃপ্রতিম মালয়েশিয়ার জনগণের সুখ, শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।