মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সংগঠক মুক্ত আসর উদ্যোগে অমর একুশে বইমেলায় বাংলা ভাষার প্রথম ১০০ শব্দের গল্পসংকলন ‘শত কথার শত গল্প’ এর তৃতীয় খণ্ড প্রকাশিত হয়েছে। দুই বাংলার ১০০ জন প্রতিষ্ঠিত ও তরুণ লেখকদের লেখা নিয়ে ‘শত কথার শত গল্প’ এর তৃতীয় খণ্ড। 

বইটি সম্পাদনা করেছেন কবি, সংগঠক ও সম্পাদক আবু সাঈদ। প্রকাশ করে স্বপ্ন ’৭১ প্রকাশন। বইটি উৎসর্গ করা হয় বাংলা সাহিত্যের অন্যতম দুই দিকপাল তারাশঙ্কর বন্দোপাধ্যায় ও সৈয়দ মুজতবা আলী। প্রচ্ছদ করেন শিল্পী নিয়াজ চৌধুরী তুলি।

শত কথার শত গল্প ( তৃতীয় খণ্ড) বইয়ের সম্পর্কে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন,  ১০০ শব্দের গল্প প্রথম ও দ্বিতীয় খণ্ড গল্প পড়েছি। এর অনেকগুলো গল্প আমার মনে দাগ কেটেছে। এই গল্পের একটা পাঠক শ্রেণী আছে। যখন কোনো গল্পের পাঠক শ্রেণী থাকে তখন সেটা আদান-প্রদানের মাধ্যম হয়ে যায়। আমি মনে করি এটা একটা শক্তিশালী মাধ্যম হিসেবে দাঁড়িয়ে যাবে। 

বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটি সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. এ কে এম শাহনাওয়াজ বলেন,  দুই বাংলার ১০০ শব্দে ১০০টি অণুগল্প এক সঙ্গে করা সোজা কথা নয়। ‘মুক্ত আসর’ অমন অসাধ্য সাধন করেছে ২০১৮ ও ২০১৯ সালে দুটো গল্পগ্রন্থের সফল প্রকাশনার মাধ্যমে। এবারের তৃতীয় গল্পগ্রন্থটিও একইভাবে পাঠকপ্রিয়তা পাবে বলে আশা রাখি। গল্পের শত লেখক ও সম্পাদনা সংশিষ্ট সবাইকে অভিনন্দন জানাই।’

বইটির সম্পাদক আবু সাঈদ বলেন, সবার উৎসাহ–উদ্দীপনায় শত কথার শত গল্প এর তৃতীয় খণ্ডটি প্রকাশ করতে পেরেছি। সত্যি, অবাক লাগে যখন এমন একটি ধারণা নিয়ে কাজ শুরু করি— ভাবতে পারিনি এত দূর পর্যন্ত যেতে পারব। দুই বাংলায় ১০০ শব্দের গল্প প্রতিযোগিতার প্রতিযোগীদের নির্বাচিত লেখা ও প্রতিষ্ঠিত লেখকদের লেখা নিয়ে প্রতিবারের মতো তৃতীয় খণ্ডটি নিঃসন্দেহে ভালো লাগবে। বিজ্ঞপ্তি।

বিষয় : বইমেলা শত কথার শত গল্প

মন্তব্য করুন