রাজধানী

সাম্প্রদায়িকতা বড় চ্যালেঞ্জ: সংস্কৃতিমন্ত্রী

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে গেলেও দেশে সাম্প্রদায়িকতার হুমকি বিরাজ করছে। এ সমস্যা সমাধানে তরুণদের সামাজিক ঐকতানের চেতনায় সংযুক্ত করতে হবে। সাম্প্রদায়িকতা এক 'বিরাট চ্যালেঞ্জ'। ধর্মের নামে মানুষের মাঝে বিভেদ সৃষ্টি এবং তাদের আলাদা করার অপচেষ্টা সাম্প্রতিক সময়ে তীব্র হয়ে উঠেছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর কসমস সেন্টারে 'বাউল দর্শন, সাহিত্য ও সঙ্গীত' নিয়ে আয়োজিত কসমস সংলাপে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ডেনভারের অর্থনীতির অধ্যাপক ও জন ইভান্স ডিস্টিংগুইসড অধ্যাপক হায়দার এ খানের সভাপতিত্বে সংলাপে স্বাগত বক্তব্য দেন কসমস ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক নাহার খান।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন লালন গবেষক ড. আনোয়ারুল করীম, বাংলা একাডেমির উপ-পরিচালক তপন বাগচি, লেখক ও গবেষক সুমনকুমার দাস এবং সঙ্গীতশিল্পী মাকসুদুল হক।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, জনগণ ব্রিটিশ আমল থেকে সাম্প্রদায়িকতার বিষ বহন করছে এবং পাকিস্তান আমলে ও পরবর্তী সময়ে তা আরও বিস্তার লাভ করেছে। সাম্প্রদায়িকতার হুমকি মোকাবেলায় মানুষকে তাদের জীবনে বাউল দর্শন, মানবতার দর্শন, ভালোবাসা ও ঐক্যের চর্চা করা প্রয়োজন।

অতীতে বাউলরা কয়েকবার হামলার শিকার হয়েছেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমার মনে হয় না এগুলো বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এগুলো ছিল পরিকল্পিত হামলা। যারা অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাস করে না তারাই বাউলদের ওপর এসব হামলা চালিয়েছিল।

অধ্যাপক হায়দার এ খান বলেন, এই অস্থির সময়ে বাউল দর্শন, সাহিত্য ও সঙ্গীত নিঃসন্দেহে তাদের ঐতিহাসিক প্রগতিশীল ভূমিকা পালন করে যাবে। বাউল শিল্প ও দর্শন বৈশ্বিক ন্যায়বিচারের বর্তমান স্তোগানের অংশ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।