রাজধানী

জাবালে নূরের মালিকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র চলতি সপ্তাহে

প্রকাশ: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

রাজধানীতে বাসচাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ছয়জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে এই সপ্তাহে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দিচ্ছে তদন্তকারী সংস্থা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

আসামি ছয়জন হলেন এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনটি বাসের চালক মাসুম বিল্লাহ, জুবায়ের ও সোহাগ, দুই বাস চালকের সহকারী এনায়েত ও রিপন এবং ঘাতক বাসের মালিক নূরের শাহাদাত হোসেন।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের পুলিশের গোয়েন্দা শাখা ডিবির যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন এ কথা বলেন।

ছয় অভিযুক্তের মধ্যে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন চারজন। দুইজন এখনও পলাতক। তারা হলেন সহকারী কাজী আসাদ ও মালিক জাহাঙ্গীর আলম।

গত ৩০ জুলাই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন (চার্জশিট) দাখিলের জন্য ৫ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করে দেন আদালত। এর আগে ২৯ জুলাই দুপুরে জাবালে নূরের দুটি বাসের পাল্লাপাল্লিতে রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী দিয়া খানম মিম ও আব্দুল করিম রাজু নিহত হন।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনের সড়কে অন্য বাসের সঙ্গে রেষারেষিতে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম (মিম) ও বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আব্দুল করিম রাজিব নিহত হন। বাসটির রেজিস্ট্রেশন নম্বর ঢাকা মেট্টো-১১-৯২৯৭। ওই ঘটনায় দিয়ার বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় একটি মামলা করেন। পরে ওই মামলায় জাবালে নূর পরিবহনের তিনটি বাসের চালক ও তাদের দুই সহকারীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গত ১ আগস্ট সন্ধ্যায় র‍্যাবের পক্ষ থেকে জাবালে নূরের ঘাতক বাসের মালিক শাহাদাত হোসেনকে (৬০) গ্রেপ্তারের খবর জানানো হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া ছয়জনকে পরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বর্তমানে মামলাটির তদন্ত করছে ডিবি।