পপুলার হাসপাতালের সেই চিকিৎসককে অব্যাহতি

প্রকাশ: ১৭ জুন ২০১৯     আপডেট: ১৭ জুন ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ডা. শওকত হায়দার -সংগৃহীত

রাজধানীর ধানমণ্ডির পপুলার হাসপাতালের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে নারী রোগীকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ ওঠার পর তাকে স্থায়ীভাবে হাসপাতাল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। 

ওই নারীর অভিযোগ, চিকিৎসার নাম করে ডা. শওকত হায়দার তাকে চুমু খেয়েছেন এবং আপত্তিকরভাবে শরীর স্পর্শ করার চেষ্টা করেছেন। এ নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই নারী। এর পরপরই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে স্থায়ীভাবে অব্যাহতি দেয়।

ডা. শওকত হাসপাতালটিতে চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন।

পপুলার হাসপাতালের মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিভাগের প্রধান অচিন্ত্য কুমার নাগ জানান, ডা. শওকত সপ্তাহে দু'দিন তাদের হাসপাতালে খণ্ডকালীন চেম্বার করতেন। রোগীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে স্থায়ীভাবে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগে ওই নারী বলেন, গত শনিবার দুপুরে মুখে ব্রণের সমস্যা নিয়ে তিনি পপুলার হাসপাতালে ডা. শওকতের শরণাপন্ন হন। ইনজেকশন দেওয়ার সময় চিকিৎসক তার সঙ্গে আপত্তিকর আচরণ এবং শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার চেষ্টা করেন।

ওই তরুণী রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী। চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগে তিনি বলেন, একপর্যায়ে চিকিৎসক তার গালে ইনফেকশন দেখতে চান। সে সময় তিনি তার গালে চুমু খেয়েছেন। এরপর বাড়ি ফিরে তরুণী তার বোনকে সবকিছু খুলে বলেন। ফোন করে ওই চিকিৎসকের কাছে কারণ জানতে চাইলে তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। ওই দিন বিকেলে হাসপাতালে গিয়ে তরুণী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।