ঢাবিতে 'কালো দিবস' পালিত

অগণতান্ত্রিক সরকারের ব্যর্থতায় ২৩ আগস্টে নির্যাতন: উপাচার্য

প্রকাশ: ২৩ আগস্ট ২০১৯     আপডেট: ২৩ আগস্ট ২০১৯      

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান— সমকাল

অগণতান্ত্রিক সরকারের ব্যর্থতা ও ভুল সিদ্ধান্তের কারণেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ২০০৭ সালের ২৩ আগস্ট অনাকাঙ্ক্ষিত নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছিল বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান।

ঢাবির 'কালো দিবস' উপলক্ষে শুক্রবার দুপুরে টিএসসি মিলনায়তনে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো. এনামউজ্জামানের সঞ্চালনায় সভায় ঢাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এএসএম মাকসুদ কামাল, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম, ঢাবি মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড ইউনিটের পক্ষে অধ্যাপক আবু জাফর মোহাম্মদ সালেহ্‌, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আমিরুল ইসলাম, ডাকসুর ভিপি মো. নুরুল হক, ২৩ আগস্টে নির্যাতিত ছাত্র জাহিদুল ইসলাম বিপ্লব, কর্মচারী সমিতির সভাপতি সরোয়ার মোর্শেদ, কারিগরি কর্মচারী সমিতির সভাপতি মোশাররফ হোসেন এবং চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেলিম মিয়া বক্তব্য দেন।

উপাচার্য বলেন, সে সময় শিক্ষার্থীদের দাবি ছিল ন্যায়সঙ্গত। সরকার ও প্রশাসন সেই দাবি সঠিকভাবে অনুধাবন ও সঠিক পদক্ষেপ নিলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আজ কালো দিবস পালিত হতো না। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা নিয়মতান্ত্রিক পদ্ধতিতে সবসময় যে কোনো অন্যায় ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে থাকেন। ন্যায়সঙ্গত আন্দোলন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবময় ইতিহাসের অংশ।

দিবসটি উপলক্ষে এদিন সকালে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে 'ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সচেতন ছাত্র-শিক্ষকবৃন্দ'-এর ব্যানারে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিম, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এমএম আকাশসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। 

কালো দিবস উপলক্ষে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্রছাত্রীরা কালো ব্যাজ ধারণ করেন।