ফকিরাপুলে 'ক্যাসিনো'তে অভিযান, ১৪২ জনকে সাজা

প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯     আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

বুধবার বিকেলে ক্যাসিনোতে অভিযান চালায় র‌্যাব। ছবি: সমকাল

রাজধানীর ফকিরাপুলে একটি 'ক্যাসিনো'তে অভিযান চালিয়ে প্রায় ২৫ লাখ টাকাসহ ১৪২ জন আটক করেছে র‌্যাব।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ফকিরাপুলের 'ইয়ংমেনস ক্লাবে'র এই ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযান শুরু হয়। যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া এই ক্যাসিনোর সভাপতি। অভিযানে আটক ১৪২ জনকে পরে সাজা দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, ফকিরাপুলের ইয়ংম্যানস ক্লাবে জুয়ার আসর ও বার বসানোর কোনো লাইসেন্স নেই। সেখানে অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে জুয়া ও মদের আসর বসিয়ে আসছিল একটি চক্র। বুধবারের অভিযানে দুই নারীসহ ১৪২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হয়েছে। ওই ক্লাব থেকে ২৪ লাখ ২৯ হাজার টাকা জব্দ করা হয়েছে।

এদিকে ক্যাসিনোতে অভিযানের সময়েই যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার গুলশান-২ নম্বরের ৫৯ নম্বর সড়কের বাসাতেও অভিযান চালানো হয়। পরে রাতে বাসা থেকে খালেদকে অস্ত্রসহ গ্রেফতারের কথা জানায় র‌্যাব। এছাড়া খালেদের কাছে লাইসেন্সের মেয়াদোত্তীর্ণ আরও দুটি অস্ত্র ও মাদক পাওয়া যায়। তার বিরুদ্ধে অবৈধভাবে ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগ আনা হয়েছে। এর আগে খালেদের গুলশান-২ নম্বরে ৫৯ নম্বর রোডের ৪ নম্বর বাসাটি ঘিরে রাখে র‌্যাব। 

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম সমকালকে বলেন, খালেদকে গুলশানের বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযানে একটি অবৈধ অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গের কারণে আরও দু'টি অস্ত্র জব্দ করা হয়েছে।