ডেঙ্গুতে তুলনামূলক দেশে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কম: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

যেসব দেশে ডেঙ্গুজ্বরের প্রকোপ আছে, সেসব দেশের জনসংখ্যার তুলনায় বাংলাদেশে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা কম বলে দাবি করেছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেছেন, ডেঙ্গু কেবল বাংলাদেশের সমস্যা না। গোটা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতেই এর বিস্তার লাভ করেছে। সবচেয়ে বেশি প্রকোপ দেখা দিয়েছে ফিলিপাইনে। সেখানে সরকারি হিসাবে এক হাজারের বেশি মৃত্যুর হিসাব রয়েছে। সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ডের মতো উন্নত দেশগুলোও পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে এবং এসব দেশে আক্রান্তের অংকটাও বেশ বড়।

বুধবার গাবতলীতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পরিচ্ছন্নতার যন্ত্রপাতি পরিদর্শনে গিয়ে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ডেঙ্গু সংক্রমণ হয়েছে- এমন দেশের মধ্যে মোট জনসংখ্যা এবং আক্রান্তের তুলনায় বাংলাদেশে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম। ইতিমধ্যে যথেষ্ট মাত্রায় ডেঙ্গুজ্বর কমেছে। কারণ সিটি করপোরেশন জনগণকে সম্পৃক্ত করেছে এবং এডিসের বিরুদ্ধে কাজ করেছে।

উপ-শহরগুলোতেও ডেঙ্গু দমনে সারা বছর পরিকল্পনা করে কাজ করা হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, একটি পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। নভেম্বর-ডিসেম্বর, মার্চ-এপ্রিল নয়, সারা বছরই কাজ করা হবে।

কারওয়ানবাজার কাঁচাবাজারকে গাবতলীতে স্থানান্তর: কারওয়ানবাজার কাঁচাবাজারকে গাবতলী বেড়িবাঁধে স্থানান্তরের বিষয়ে সরকার ভাবছে বলে জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, এটা করার যে পরিকল্পনা ছিল সে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য ডিএনসিসি মেয়রসহ সবাইকে নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে মালিক সমিতি, দোকানদারদের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে সমস্যাটা সমাধান করা হবে।