ঢামেকের সেই নার্সের মৃত্যু, স্বামী আটক

প্রকাশ: ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯      

 সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

হাসপাতালে দায়িত্ব পালনকালে আত্মহত্যার চেষ্টা করে আহত নার্স মৌসুমী দাস (২৭) মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এর পর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসা দেওয়া হয়। শনিবার সকালে সেখানেই মারা যান। ওই ঘটনায় মৌসুমীর স্বামী সঞ্জয় দাসকে আটক করেছে পুলিশ।

মৌসুমী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স ছিলেন। পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোড এলাকায় তিনি ভাড়া বাসায় থাকতেন। তার স্বামী পটুয়াখালী সমাজসেবা অফিসে কর্মরত। এক বছর আগে তাদের বিয়ে হয়।

মৌসুমীর সহকর্মী ও পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে নার্স মৌসুমী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হাই ডিপেনডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) কর্তব্যরত ছিলেন। এ সময় তিনি কারও সঙ্গে উত্তেজিত হয়ে মোবাইল ফোনে কথা বলেন। এক পর্যায়ে সেটি ছুড়ে ফেলে দেন। এর পরই পাশের ড্রেসিং রুমে গিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। পরে সহকর্মীরা গোঙানির শব্দ শুনে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে আইসিইউতে ভর্তি করেন। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।

শাহবাগ থানার ওসি মো. আবুল হাসান বলেন, মৌসুমীর মৃত্যুর খবরে তার স্বামী সঞ্জয় দাস হাসপাতালে আসেন। পরিবারের কিছু মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে সেখান থেকেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা আত্মহত্যায় প্ররোচনার লিখিত অভিযোগ দিলে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে।