জনতা ব্যাংকের টেলার নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা বাতিলের দাবি

প্রকাশ: ০১ মার্চ ২০২০   

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানবন্ধন করেন চাকরিপ্রার্থীরা- সমকাল

রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানবন্ধন করেন চাকরিপ্রার্থীরা- সমকাল

দুর্নীতি ও প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ করে গত ৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত জনতা ব্যাংকের ৫৩৬ পদের টেলার নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা বাতিলে দাবি জানিয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। রোববার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তারা এ দাবি জানান।

এ ছাড়াও এই নিয়োগ পরীক্ষা তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব থেকে আহসান উল্ল্যাহ ইউনিভার্সিটিকে বাতিলের দাবিও জানান তারা। ‘বাংলাদেশ সাধারণ শিক্ষার্থী ব্যাংকিং নিয়োগ পরীক্ষা-কেন্দ্রীয় কমিটি’ এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

কমিটি সমন্বয়ক কামরুজ্জামান পিকুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- সহ সমন্বয়ক মিল্টন আহমেদ, গোলাম রাব্বানি, আমিনুল, বেনজির আহমেদ, শাহ আলম, মোস্তাফিজ, মেহেদি হাসান, সোলায়মান, শাহাবুল ইসলাম, মতিউর আনিস খান, মাইদুল প্রমুখ।

মানববন্ধনে চাকরিপ্রার্থীরা বলেন, গত ৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত জনতা ব্যাংকের টেলার নিয়োগের লিখিত পরীক্ষায় আমরা ৯ হাজার ৭৪২ জন অংশগ্রহণ করি। কিন্তু পরীক্ষাটি ছিল প্রশ্ন ফাঁস আর দুর্নীতিতে ভরা। তাই আমরা এই দুর্নীতিতে ভরা নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল চাই।

কামরুজ্জামান পিকু বলেন, গত ৯ ফেব্রুয়ারি বাংকার্স সিলেকশন কমিটি ও গভর্নর বরাবর এই পরীক্ষা বাতিলের জন্য আবেদন করেছিলাম। দুর্নীতিতে জর্জরিত এই পরীক্ষা পরীক্ষা বাতিল করতে হবে। আমরা মেধা ও স্বচ্ছতার ভিত্তিতে চাকরি চাই। আমরা দুর্নীতি বন্ধ চাই।