ঢাকা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রাজধানীর মিরপুরের ‘প’ ব্লক বস্তিতে (কালশী) দিনমজুর, রাজমিস্ত্রি, রিকশাওয়ালা, ভ্যানচালক, ছুটা বুয়া ও কর্মহীন অন্যান্য ব্যক্তিসহ মোট ৫০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। রোববার সকালে প্রত্যেক পরিবারের মাঝে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল ও দুই কেজি আলু বিতরণ করা হয়।

ত্রাণ বিতরণের সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য ইলিয়াস আলী মোল্লা, ঢাকার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম, এসিল্যান্ড মোহাম্মদপুর, এসিল্যান্ড মিরপুর, ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন এবং সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর উপস্থিত ছিলেন। ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রমে রেডক্রিসেন্টের ঢাকা জেলা ইউনিটের সদস্যরা সহযোগিতা করেন।

ঢাকা জেলা প্রশাসন থেকে জানানো হয়, করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে হোম কোয়ারেন্টিন না মানা, অপ্রয়োজনে ঘোরাঘুরি করা এবং সরকারি নির্দেশ অমান্য করে ত্রাণ বিতরণের নামে গুজব সৃষ্টি করে জনসমাগম করায় ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে ও ঢাকা জেলার উপজেলাগুলোতে তিনটি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ২২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন অনুযায়ী নিম্নবিত্ত মানুষের জন্য সমগ্র ঢাকা জেলাতেই পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট ও এলাকাসমূহ নির্বাচন করে গত ২৭ মার্চ থেকে ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে। ত্রাণ বিতরণের সময় ‘সামাজিক দূরত্ব’ বজায় রাখার বিষয়ে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

এ ছাড়া ৩৩৩ নম্বরের কল সেন্টার ও জেলা প্রশাসন- ঢাকার কন্ট্রোল রুম ফোন-০২৪৭১১০৮৯১, মোবাইল-০১৯৮৭৮৫২০০৮) এ পাওয়া ফোন কলের ভিত্তিতে রবিবার সিটি কর্পোরেশন এলাকাসহ ঢাকা জেলায় বিভিন্ন এলাকায় মোট ২৫০টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়।