হাসপাতালের ৬ তলা থেকে করোনা আক্রান্ত বিদেশির লাফ, মৃত্যু

প্রকাশ: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০     আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভবন থেকে পড়ে গিয়ে মিখাইল স্টেলমাখ নামের এক বিদেশির মৃত্যু হয়েছে। ২৯ বছর বয়সী মিখাইল বেলারুশের নাগরিক। তিনি পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিক ছিলেন।

রোববার ভোরে তিনি হাসপাতাল ভবনের ছয়তলা থেকে লাফিয়ে পড়েন বলে পুলিশ জানিয়েছে। তার মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ২৫ অগাস্ট করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মিখাইল স্টেলমাখ ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন। চিকিৎসার এক পর্যায়ে তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসে। পরে পরীক্ষায় পজিটিভ আসে। এরমধ্যেই রোববার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ছয়তলার বাথরুমে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন তিনি। সেখানে তিনি একটি টেবিল নিয়ে যান। এরপর জানালার থাইগ্লাস সরিয়ে ওই টেবিলের ওপর উঠে সেখান থেকে লাফিয়ে পড়েন। তাকে উদ্ধার করে ল্যাবএইড হাসপাতালেই চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। বিকেলে তিনি মারা যান।

ধানমণ্ডি থানার উপ-পরিদর্শক রায়হানুল করিম জানান, পুলিশ খবর পেয়ে রাত ৮টার দিকে ওই বিদেশির মরদেহ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। সোমবার ময়নাতদন্ত শেষে তার মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

ধানমণ্ডি থানার ওসি একরাম আলী মিয়া জানান, করোনাআক্রান্ত বেলারুশ নাগরিক মিখাইল করোনা পজিটিভ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেও প্রথমবারের পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে। পরের পরীক্ষায় আবার পজিটিভ আসলে তিনি হতাশ হয়ে পড়েন। এই হতাশা থেকে তিনি লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওসি বলেন, ঘটনাটি রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। পাশাপাশি তার দেশের দূতাবাসকেও জানানো হয়েছে।

রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের পরিচালক শৌকত আকবর সমকালকে বলেন, মিখাইল ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কর্মী ছিলেন। তিনি করোনায় আক্রান্ত হলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে তাকে ল্যাবএইডে ভর্তি করা হয়েছিল।