রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকায় বৃহস্পতিবার দুই শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের পূর্ব পাশে বেবিচকের এভিয়েশন ইউনিভার্সিটি নামে নির্ধারিত জমিতে এ অভিযান চালানো হয়।

সম্প্রতি বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বিমানবন্দরে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, বেবিচকের এক ইঞ্চি জমি বেহাত হতে দেওয়া হবে না। বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের পূর্ব পাশে অবৈধ দখলবাজদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান চালানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। এরই অংশ হিসেবে অভিযান চালিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় এসব অবৈধ স্থাপনা।

জানা যায়, স্থানীয় রাজনৈতিক সুবিধাবাদী কিছু লোকের ছত্রছায়ায় দুই শতাধিক হকার অবৈধভাবে বেবিচকের জমি দখল করে তাতে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করে। অভিযোগ আছে, ঘটনার সঙ্গে বেবিচকের সম্পত্তি শাখার এক শ্রেণির কর্মী জড়িত।

বৃহস্পতিবারের অভিযানে বেবিচকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে বিমানবন্দর থানা পুলিশ, র‌্যাব, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন), আনসার, অ্যাভসেক সিকিউরিটিসহ সংশ্নিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন।

এ ব্যাপারে বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান সমকালকে বলেন, দখলবাজ চক্রটির বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। চক্রটির সঙ্গে কোনো কর্মী জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেলে, তার বিরুদ্ধে বিভাগীয়সহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

তিনি আরও বলেন, বেবিচকের এক ইঞ্চি জায়গাও দখল হতে দেওয়া হবে না।

এ ব্যাপারে বিমানবন্দর থানার ওসি বিএম ফরমান আলী এবং বিমানবন্দর পুলিশ বক্সের ইনচার্জ এসআই মেহেদী হাসান সমকালকে বলেন, বেবিচক কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এ উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।