রাজধানীর ধানমন্ডির একটি বাসা থেকে সুব্রতা অধিকারী (৩৩) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার বিকেলে লাশ উদ্ধারের সময় তাকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় পাওয়া যায়। স্বজনরা তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে কিছু বলতে রাজি হননি। পুলিশ বলছে, ময়নাতদন্তে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার সাজ্জাদুর রহমান সমকালকে বলেন, সুব্রতা অধিকারী ৩১তম বিসিএসে উত্তীর্ণ হয়ে সরকারি চাকরি করছিলেন। তার স্বামী সঞ্জীব কর্মকার ঘটনার সময় বাসায় ছিলেন না।

পারিবারিক সূত্র বলছে, সুব্রতা ডেপুটি ডিভিশনাল কন্ট্রোলার অব অ্যাকাউন্টস হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি পরিবারের সঙ্গে ধানমন্ডির এক নম্বর সড়কের ২১ নম্বর বাড়ির এ-৪ ফ্ল্যাটে থাকতেন। তার স্বামী সঞ্জীব বরিশালে চাকরি করেন। বুধবার বিকেলে বাসার বাথরুমে ভেন্টিলেটরের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় সুব্রতার লাশ পাওয়া যায়। পরে পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়।

পুলিশ বলছে, খবর পেয়ে স্বজনের সহায়তায় লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়। মৃতের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।