ঢাকা বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পুরান ঢাকায় জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা

পুরান ঢাকায় জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা

ইমরান হুসাইন

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ২২:৪৭ | আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ২২:৪৭

দুয়ারে কড়া নাড়ছে বাঙালি হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ উৎসবকে সামনে রেখে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা এখন কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। বিশেষ করে পুরান ঢাকায় জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা। 

মঙ্গলবার পুরান ঢাকার বিভিন্ন শপিংমল ও মার্কেটে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। শুধু পোশাক বা প্রসাধনী নয়, মণ্ডপগুলোয় পূজার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতেও শাঁখারীবাজার ও বাংলাবাজার এলাকার দোকানগুলোয় ছিল ভিড়। পোশাকের দোকানে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী পাঞ্জাবি, ধুতি, শাড়ি, থ্রি-পিস দেখাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন বিক্রেতারা। এ ছাড়া জুতা, গহনা, কসমেটিকসের দোকানেও ভিড় দেখা গেছে। বিশেষ করে শিশু ও নারীদের পোশাকের দোকানে ভিড় ছিল একটু বেশি। 

সদরঘাটের গ্রেটওয়াল মার্কেটের লেভেল-২-এর দোকানগুলোতে দেখা যায়, শিশুদের জন্য আরামদায়ক দৃষ্টিনন্দন পোশাক সাজানো রয়েছে। বড়দের জন্য টি-শার্ট ৬০০ থেকে ২ হাজার টাকা, গ্যাবার্ডিন ও জিন্স প্যান্ট ৮০০ থেকে ৩ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পাঞ্জাবির দোকানগুলোতে তরুণদের ভিড় বেশি। কাপড় ও রং অনুয়ায়ী ১ হাজার ২০০ থেকে ৫ হাজার টাকায় পাঞ্জাবি বিক্রি হচ্ছে। পূজার আগের দু’দিনে পাঞ্জাবি ও শাড়ির বিক্রি আরও বাড়বে বলে জানান বিক্রেতারা। গ্রেটওয়াল মার্কেটের চয়েজ ওয়ান গার্মেন্টের মালিক পরিমল সাহা বলেন, এবার বেচাকেনা ভালো। মহালয়ার আগে থেকেই ক্রেতাদের সাড়া পাওয়া গেছে। 

শাঁখারীবাজার, ইসলামপুর, পাটুয়াটুলী, জাহাঙ্গীর টাওয়ার, সদরঘাট, ইসলাম টাওয়ার, বকুলি ইসলামপুর কমপ্লেক্স, লক্ষ্মীবাজার, কলতাবাজার, তাঁতীবাজার, ওয়ারী, কাঠেরপুল, ধূপখোলার মার্কেটগুলোতেও ছিল ভিড়। ধূপখোলা ও ওয়ারীর মার্কেটগুলোতে কাপড়ের রং, মানভেদে থ্রি-পিস ৭০০ থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। শাড়ি বিক্রি হচ্ছে ৯০০ থেকে ৯ হাজার টাকা পর্যন্ত। 

একই চিত্র দেখা যায় হাজী মোহাম্মদ রওশন আলী মার্কেট, এপেক্স, বাটা শু রুমগুলোয়। ক্রেতাদের অভিযোগ, এবার জুতার দাম তুলনামূলকভাবে বেশি। এ বিষয়ে যমুনা ফুটওয়্যারের মালিক শহিদুল হক জামাল বলেন, গত বছর যে দামে আমরা জুতা বেচতাম, সেই দামে এখন কিনতেও পারছি না। জুতাপ্রতি দাম ২০০-৩০০ টাকা বেড়েছে। 

পূজায় বিক্রি বেড়েছে জুয়েলারি আইটেমেরও। পুরান ঢাকার মার্কেটে ইমিটেশনের কানের দুল বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ৩০০ টাকায়। নাকফুল ও আংটি মিলছে ৫০ থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে, গলার হার ১০০ থেকে ৩৫০ টাকা। তাঁতীবাজারের সোনার দোকানেও দেখা যায় ক্রেতাদের ভিড়। তবে স্বর্ণালঙ্কারের দাম অনেক বেশি বলে জানান ক্রেতারা। 

আরও পড়ুন

×