শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চলমান পরীক্ষাসহ সব ধরনের পরীক্ষা স্থগিত করার প্রতিবাদে রাজধানীর নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার বিকেলে সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়ক ও অধ্যক্ষদের এক সভায় পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে এর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এই অবরোধ করেন তারা।

সন্ধ্যা থেকে নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এতে মোড় সংলগ্ন রাস্তাগুলোতে তীব্র যানজট দেখা দেয়। পরে রাত ১০টা পর্যন্ত সেখানে অবস্থান করে বুধবার সকাল নয়টায় আবারও নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান কর্মসূচি দিয়ে ফিরে গেছেন শিক্ষার্থীরা।

অবরোধ কর্মসূচিতে আন্দোলনকারীরা ‘পরীক্ষা নিয়ে টালবাহানা, চলবে না, চলবে না’, ‘চলমান পরীক্ষা নিতে হবে নিতে হবে, ‘সাত কলেজের পরীক্ষা নিতে হবে নিয়ে নাও,’ ‘ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা নিতে হবে নিতে,’ ‘দাবি মোদের একটাই-মার্চে হল-ক্যাম্পাস খোলা চাই,’ ইত্যাদি স্লোগান দেন।

অবরোধ কর্মসূচিতে সরকারি তিতুমীর কলেজের এক শিক্ষার্থী বলেন, এমনিতেই সব সময় সাত কলেজে সেশনজট লেগে থাকে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হওয়ার পর থেকে বছর বছর শিক্ষার্থীদের গণহারে ফেল করা হচ্ছে। করোনাভাইরাস মহামারীর আমরা আরও পিছিয়ে গেছি। এটা নিয়ে বেশ কয়েকবার রাস্তায় নামতে হয়েছে। পরে কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে রুটিন প্রকাশ করেছে। আমাদের অনেকেরেই পরীক্ষা চলমান। এই অবস্থায় হঠাৎ পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। আমরা পরীক্ষা দিতে চাই। আশা করি, কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে।

অবরোধ কর্মসূচিতে ইডেন মহিলা কলেজের এক শিক্ষার্থী বলেন, ২০১৯ সালের পরীক্ষা এখনও রয়ে গেছে। আমরা এভাবে আর সেশনজটে আটকে থাকতে চাই না। আমরা পরীক্ষা দিতে চাই। অন্যথায় আমাদের আন্দোলন চলবে। বুধবার সকাল নয়টায় আমরা আবারও নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান করব।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস আটকে আন্দোলন

নীলক্ষেত অবরোধ করে আন্দোলন চলাকালে নীলক্ষেত মার্কেট সংলগ্ন ‘ওয়ান ওয়ে’ রোড দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বহনকারী একটি সিঙ্গেল ডেকার বাস আটকান সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

এ সময় উত্তেজিত কয়েকজন শিক্ষার্থী বাস ভাঙার কথা বললেও পুলিশ এবং অন্যান্য শিক্ষার্থীদের হস্তক্ষেপে বাসটি ৩০ মিনিটের মতো আটকে রাখা হয়। অবরোধ স্থগিত করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসসহ অন্যান্য যানবাহন ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর আস্তে আস্তে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর চাপ কমিয়ে শিক্ষার মান বাড়াতে ২০১৭ সালের ফেব্রুযারিতে ঢাকার সাতটি  সরকারি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। এর পর থেকে ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, মিরপুর সরকারি বাংলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজের ভর্তি পরীক্ষা, পাঠ্যসূচি ও পরীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিচালিত হচ্ছে।

বিষয় : সাত কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

মন্তব্য করুন