ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে গাজীপুরের কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা অবস্থায় লেখক মুসতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বামপন্থি ছাত্র সংগঠনগুলো।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা এই অবরোধ কর্মসূচি শুরু করেন। বেলা ১২টার দিকে আগামী ১ মার্চ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচির ঘোষণা দিয়ে অবরোধ তুলে নেন তারা।

সমাবেশে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক নাসিরুদ্দিন প্রিন্স, ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুজন, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের সভাপতি আরিফ মঈনুদ্দিন, ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাগীব নাঈম, কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মাহির শাহরিয়ার রেজা প্রমুখ বক্তব্য দেন।

সমাবেশে সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ লেখক মুশতাকের মৃত্যুকে সরকারি মদদে হত্যাকাণ্ড হিসেবে উল্লেখ করেন। তারা বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের বিচারিক তদন্তের দাবি জানাচ্ছেন তারা। এসময় তারা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করে এই আইনে আটক কার্টুনিস্ট  কিশোরসহ অন্যান্যদের মুক্তির দাবি জানান।

অবরোধ তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়ে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের সমন্বয়ক ও ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয় জানান, আগামী ১ মার্চ একই দাবিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও করবেন তারা।

এর আগে, সকাল ১০টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে জড়ো হতে থাকেন সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। এরপর মিছিল করে করে তারা শাহবাগের দিকে অগ্রসর হন। মিছিলে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, ছাত্র ফেডারেশন, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদসহ অন্যান্য ছাত্র সংগঠন অংশগ্রহণ করে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মৃত্যু হয় লেখক মুসতাক আহমেদের। 'রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রে'র অভিযোগে গ্রেপ্তার মুসতাক গত বছরের মে মাস থেকে কারাবন্দি ছিলেন। তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর। তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায়।

মন্তব্য করুন