মহামারি করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি চলছে। অনেক দেশেই টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া শেষ করে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়াও শুরু হয়েছে। তবে বিরল ‘কিছু’ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে কেউ কেউ উৎসাহ হারাচ্ছেন এবার।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করার পক্ষেই মত দিয়েছেন গবেষকরা। তারা বলছেন, বড় ধরনের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না হলে অবশ্যই টিকা দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করা উচিত।

এছাড়া রক্ত জমাট বাঁধার বিরল লক্ষণ দেখা দেওয়ার কারণে ৩০ বছরের কম বয়সীদের অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা বাদ রেখে অন্য টিকা নিতে বলছে যুক্তরাজ্যের টিকাদান কর্তৃপক্ষ । তবে যারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন তাদের অবশ্যই এ টিকারই দ্বিতীয় ডোজ নিতে বলা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এমএইচআরএ স্থানীয় সময় বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য দিয়েছে বলে জনিয়েছে বিবিসি।

কমিটি অব হিউম্যান মেডিসিনের স্যার মুনীর পিরমোহাম্মদ বলেন, গর্ভবতী নারী যারা ভ্যাকসিন নেওয়ার কারণে সমস্যা বোধ করছেন তাদের ক্ষেত্রে ভ্যাকসিন গ্রহণ করার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

তিনি বলেন, প্রথম ডোজ নেওয়ার পর যাদের রক্তে জমাট বাঁধার মতো প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে তাদের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার দরকার নেই। এর ব্যাখ্যায় মুনীর বলেন, এটা মনে রাখতে হবে, করোনা রোগীদের এমনিতেই রক্ত জমাট বাঁধা এবং প্লাটিলেট কমার ঝুঁকি রয়েছে। তবে এই ব্যাপারে আরও গবেষণা হচ্ছে।

 


মন্তব্য করুন