গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার মেদিআশুলাই ও বেনুপুর এলাকায় গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আধাপাকা ধানসহ ভেকু দিয়ে মাটি কেটে দুটি সড়কে নির্মাণ কাজ করার অভিযোগ উঠেছে।

ওই দুটি এলাকার অর্ধশতাধিক কৃষক ধানসহ মাটি কেটে নেওয়া ধানের গাছ নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে হাজির হন। এ সময় তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং ব্যাপক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে ওই কর্মকর্তার কাছে কয়েকদিন পর রাস্তার কাজ করার জন্য আবেদন করেছেন।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা জানান, উপজেলার মেদীআশুলাই, নামাশুলাই, খালপাড়, গর্জনখালী, আষাড়িয়াবাড়ি গ্রামের মাঝখানে মেদীআশুলাই নামে একটি ধানের বিল রয়েছে। প্রতিবছর ওই বিলে গ্রামের হাজার হাজার কৃষক ধান চাষ করেন।

ওই বলের মাঝ দিয়ে বয়ে গেছে মেদীআশুলাই-নামাশুলাই সড়ক। সম্প্রতি ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দে ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন দপ্তরের তদারকিতে ওই সড়কের উন্নয়ন কাজ চলছে। এ কারণে দুই পাশের আধাপাকা ধানগাছসহ মাটি কেটে ওই সড়কে মাটি ভরাট করে প্রশস্ত করা হচ্ছে। এতে মেদীআশুলাই, নামাশুলাই ও খালপাড় গ্রামের কৃষকদের কয়েকশ মণ ধান নষ্টের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এই ব্যাপক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে কৃষকরা সড়ক নির্মাণ কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

তবে কৃষকদের দাবি, কয়েকদিন পর ওই সড়কে মাটি ভরাটের কাজ করলে পাকা ধান কেটে নেওয়া যাবে। এতে কৃষকের কোনো ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা নেই। কিন্তু সড়ক নির্মাণ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কোনোক্রমেই বিষয়টি মানতে রাজি হচ্ছে না।
মেদিয়া আশুলাই এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক রাজ্জাক বেপারী, মোসলেম উদ্দিন, রুবেল হোসেন, স্বপন বেপারী, সাকিব পালোয়ান, আব্বাস আলী, রাশেম বেপারী, মোজাম্মেল হক, জুলহাস বেপারী জানান, ভেকু দিয়ে আধাপাকা ধানের গাছসহ মাটি কেটে রাস্তার উন্নয়ন কাজ করা হচ্ছে। এতে আমাদের কয়েকশ মণ ধানের ক্ষতি হবে।

অন্যদিকে উপজেলার বেনুপুর এলাকায় আধাপাকা ধানগাছসহ মাটি কেটে নিয়ে আরেকটি সড়কের উন্নয়ন কাজ চলছে। এতে ওই এলাকার শত শত কৃষক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। বেনুপুর এলাকার কৃষকদের দাবি, ধান কেটে নেওয়ার জন্য কিছুদিন সময় দিয়ে রাস্তার উন্নয়ন কাজ করা হোক। এতে ব্যাপক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচবে সাধারণ কৃষক।

কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজুল আমিন জানান, স্থানীয় এমপির সঙ্গে কথা বলে ধান কাটার জন্য কৃষকদের কিছুদিন সময় দেওয়ার ব্যবস্থা করা যায় কিনা চেষ্টা করা হচ্ছে।

বিষয় : কালিয়াকৈর গাজীপুর

মন্তব্য করুন