অভিনেত্রী পরীমণি গুরুতর অভিযোগ আনলেও দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসিরউদ্দিন মাহমুদের বিরুদ্ধে এখনই কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না জাতীয় পার্টি।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু সোমবার গণমাধ্যমকে একথা জানান।

তিনি বলেন, ‘পরীমণি তার ফেসবুক পোস্টে কারও নাম উল্লেখ না করায় এখনই কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে না।’

রোববার রাতে পরীমণি ফেসবুক পোস্টে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনলেও কারও নাম উল্লেখ করেননি। তবে রাতে গণমাধ্যমের সামনে এসে জানান, সেই ব্যক্তি নাসিরউদ্দিন মাহমুদ। 

পরীমণি জানান, বুধবার রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে একটি কাজের আলোচনায় গিয়ে পরিচয়। তার সঙ্গীকে মারধর করে তাকে জোর করে মদ ও নেশাজাতীয় দ্রব্য খাওয়ানো হয়। পরে সেখান থেকে তিনি কীভাবে এসেছেন, সেটি মনে নেই। একপর্যায়ে নিজেকে আবিষ্কার করেন তার গাড়িতে।

জানা যায়, নাসিরউদ্দিন মাহমুদ জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য। তিনি কুঞ্জ ডেভলপার্স লিমিটেডের চেয়ারম্যান। উত্তরা ক্লাব লিমিটেডের ২০১৪-১৫ ও ২০১৫-১৬ সালে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ছিলেন লায়ন ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের ডিসট্রিক্ট চেয়ারম্যান।

এ বিষয়ে নাসিরউদ্দিনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। উত্তরা ক্লাব এবং কুঞ্জ ডেভলপার্সের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও তার অবস্থান জানা যায়নি।    

এদিকে জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘আমি জানি না। নাসিরউদ্দিন মাহমুদের নাম পরীমণির পোস্টে দেখিনি। পরীমণি তো কারও নাম বলেননি। নাম না বললে আমরা কীভাবে বুঝব?’

তিনি আরও বলেন, ‘পুলিশের তদন্তে দলের কারও নাম বেরিয়ে এলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বিষয় : নাসির জাতীয় পার্টি পরীমণি

মন্তব্য করুন