ঢাকা ব্যাংকের রাজধানীর বংশাল ব্রাঞ্চের ভল্ট থেকে ৪ কোটি টাকা উধাও হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার ব্যাংকটির অডিটে এ তথ্য উঠে আসার পর ওই শাখার দুই কর্মকর্তাকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

তারা হলেন- ব্রাঞ্চের ক্যাশ ইনচার্জ রিফাজুল হক, ম্যানেজার (অপারেশন) এমরান আহমেদ। শুক্রবার সকালে বংশাল থানার ডিউটি অফিসার এসআই মাসুম বিল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি সমকালকে বলেন, ব্যাংকের ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা সরানো হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছে। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে রিফাজুল হক এবং এমরান আহমেদ নামের ব্যাংকটির দুই কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কোনো মামলা হয়নি। আটক দু'জনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

ডিউটি অফিসার আরও জানান, বৃহস্পতিবার রাতে মূলত অডিটের সময় টাকা উধাওয়ের বিষয়টি ধরা পড়ে। এরপর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ নড়েচড়ে বসে। ব্যাংকের ওই শাখার সিসি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে।

ঢাকা ব্যাংকের এমডি এমরানুল হক সমকালকে বলেন, বংশাল ব্র্যাঞ্চ থেকে চার কোটি টাকার উধাওয়ের ঘটনা আমরা গতকাল (বৃহস্পতিবার) জানতে পারি। যে দু'জনকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে তাদের একজন ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকারা কথা স্বীকার করেছেন। এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ব্যাংক। এফআইআরে চার কোটি টাকার কথা উল্লেখ করা হলেও তা কিছু কম-বেশি হতে পারে। রিপোর্ট পাওয়ার পর ঠিক কতো টাকা সরানো হয়েছে তা জানা যাবে।

বিষয় : ব্যাংকের টাকা উধাও ঢাকা ব্যাংক

মন্তব্য করুন