গাবতলী পশুহাটের প্রধান আকর্ষণ 'সম্রাট'। হাটের প্রবেশমুখেই অবস্থান নিয়েছে সম্রাট। বেশ আয়েশি ভঙ্গিতে ঝিমাচ্ছে। মাঝে মাঝে চোখ খুলছে। তাকে দেখার জন্য ভিড় লেগেই আছে। ’সম্রাট’ নামের এই ষাড় গরুটি হাটে তুলেছেন নাটোরের গুরুদাসপুরের নাজিরপুর ডিগ্রি কলেজের মনোবিজ্ঞানের শিক্ষক মাসুদ রেজা। 

তিনি জানান, মাস্টার ডেইরি ফার্ম নামে তার একটি খামার রয়েছে। নিজস্ব খামারেই সম্রাটের জন্ম। এখন বয়স তিন বছর আট মাস। হলস্টাইন ফ্রিজিয়াম জাতের এই ষাড় গরুটির ওজন প্রায় দেড় হাজার কেজি। উচ্চতায় প্রায় ৬ ফুট, লম্বায় ১১ ফুট। কালো রঙের এই গরুটির দৈনিক খাদ্য তালিকায় আছে ঘাষ, ভূসি, বিভিন্ন ধরনের ফল, ভুট্টা ও খেসারি। আর পানি পান করে সম্রাটের পছন্দমতো। কিন্তু পরিশ্রম একেবারেই করতে পারে না। নাটোর থেকে ট্রাকে এসেই ক্লান্ত হয়ে পড়েছে। এজন্য বেশিরভাগ সময় শুয়ে থাকে। মালিক বললে কিছু সময়ের জন্য উঠে দাঁড়ায়। দেখভাল করা রাখাল ছেলেটা তখন সম্রাটের পিঠে উঠে পড়ে। তাতে সম্রাট অখুশি হয় না। 

মালিক মাসুদ রেজা জানান, কোনো দিন সম্রাটের গলায় দড়ি বাধা লাগেনি। এই প্রথম হাটে আনার পর গলায় ছোট্ট রশি লাগানো হয়েছে। দাম চাইছেন ২০ লাখ টাকা। কিন্তু পছন্দমতো দাম কেউ বলেনি। তার গরুটির কয়েকটি ছবি ও ভিডিও গণমাধ্যমেও প্রকাশিত হয়েছে। এ জন্য অনেকেই হাটে এসে সম্রাটের খোঁজ করছে।

হাটে আরেকটি বড় ষাড় গরু এনেছেন কুষ্টিয়ার ঝাউদিয়ার বাসিন্দা আমিরুল মেম্বার। গরুর নাম 'ডাবল ব্ল্যাক'। এটি অস্ট্রেলিয়ান জাতের। ওজন প্রায় ১ হাজার ৬০০ কেজি। উচ্চতা সাড়ে ৫ ফুট, দৈর্ঘ ১১ ফুট। বয়স সাড়ে তিন বছর। 

আমিরুল মেম্বার জানান, ষাড়টির গায়ের রঙ গাড় কালো হওয়ায় নাম রেখেছেন 'ডাবল ব্ল্যাক'। হাটে তার গরুটিই মনে হয় সবচেয়ে বড়। দাম চাইছেন ১৬ লাখ। দেখা যাক কেমন কি দাম ওঠে।

বিষয় : গাবতলী পশুহাট সম্রাট ষাড় গরু

মন্তব্য করুন