ঈদ উপলক্ষে লকডাউন শিথিলের পর করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে শুক্রবার সকাল ছয়টা থেকে আবারও শুরু হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ। চলবে আগামী ৫ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত । 

সকালে ঢাকার গাবতলী, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, ফার্মগেট, শাহবাগ, মগবাজার রাস্তায় যান চলাচল ছিল না বললেই চলে। হাতেগোনা কয়েকটি রিকশা চোখে পড়েছে। সকাল নয়টার আগে গাবতলী, শাহবাগ, ফার্মগেট এলাকায় বেশ কিছু মানুষকে মালপত্র নিয়ে হাঁটতে দেখা গেছে। মোড়ে মোড়ে অনেককে যানবাহনের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। তাদের বেশিরভাগই ঈদ উদযাপন শেষে সকালে ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন।

যানবাহন না পেয়ে হেঁটেই গন্তব্যের পথে অনেকে। ছবি: ইয়াজিম পলাশ 

গাবতলী এলাকায় সকাল আটটার দিকে আলী ইউনুস হৃদয় (২৫) নামে একজন বেসরকারি কর্মকর্তা জানান, তিনি কুষ্টিয়া থেকে ঢাকায় আসছেন। গাবতলীতে সকাল ৬টায় পৌঁছার পর কোন যানবাহন না পেয়ে হেঁটেই রওনা দিয়েছেন কর্মস্থলের দিকে। যেকোন ভাবেই হোক অফিস করতে হবে বলেও জানান তিনি। এ কারণে হেঁটেই রওনা দিতে বাধ্য হয়েছেন তিনি ।  

এদিকে ফার্মগেটে ভারী ব্যাগ কাঁধে নিয়ে হাঁটছেন ফারুক খান(২৮)। তিনি বলেন, ‘নওগাঁ থেকে অনেক কষ্ট করে কল্যাণপুর এসেছি। এখন বাসায় যাওয়ার জন্য কোন যানবাহন পাচ্ছি না। তাই হেঁটেই ফার্মগেট পর্যন্ত এসেছি। এত ভোগান্তি হচ্ছে আমাদের এই লকডাউনের কারণে।’

যানবাহনহীন ঢাকার রাস্তা। ছবি: ইয়াজিম পলাশ

এদিকে সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী, আগের বিধিনিষেধের মতোই এবারের বিধিনিষেধে সব সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস; সড়ক, রেল ও নৌপথে গণপরিবহন; অভ্যন্তরীণ উড়োজাহাজসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।