প্রকাশ্যে গৃহকর্মীকে মারধর ও শ্লীলতাহানির ঘটনায় সিরাজগঞ্জে আরাফাত শাকিল (৩৮) নামের এক ব্যাংক ম্যানেজারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

নির্যাতিত গৃহকর্মীর দায়েরকৃত মামলায় রোববার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সোমবার দুপুরে শাকিলকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠায় পুলিশ। 

গ্রেপ্তার আরাফাত শাকিল শহরের রহমতগঞ্জ মহল্লার ৪ নম্বর গলির শওকত আলীর ছেলে। তিনি শহরের এসবি ফজলুল হক রোড (গোশালা) জনতা ব্যাংক শাখার ব্যবস্থাপক। 

সদর থানার ওসি মো. বাহাউদ্দীন ফারুকী জানান, নূরজাহান তুর্কী (৫৯) নামের এক গৃহকর্মীকে প্রকাশ্যে মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে আরাফাত শাকিল ও তার বোন জান্নাতুল নাঈম সাথীকে (৩৪) আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। মামলার অন্যতম আসামি শাকিলকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

মামলার নথি থেকে জানা যায়, অভিযুক্ত জান্নাতুল নাঈম সাথী বেলকুচিতে সরকারি চাকরি করেন। ৮ মাস আগে তার বেলকুচির সরকারি কোয়ার্টারে মাসিক ৬ হাজার টাকা বেতনে গৃহকর্মীর কাজ নেন তুর্কী। তুর্কীর কাজকর্ম পছন্দ না হওয়ায় প্রায়ই তাকে গালমন্দ করা হত। এরপর তাকে শারীরিক নির্যাতন করা হলে হঠাৎ কাজ বন্ধ করে দিয়ে নিজ বাড়িতে চলে যান তুর্কী। এরপর গত ২০ জুলাই রহমতগঞ্জের একটি বাড়িতে কাজ করতে যাওয়ার পথে জান্নাতুল নাঈম সাথী ও তার বড় ভাই ব্যাংক ম্যানেজার আরাফাত শাকিল মিলে তুর্কীকে প্রকাশ্যে মারধর ও তার শ্লীলতাহানি করে। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা তুর্কীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে ফিরে রোববার রাতে থানায় মামলা দায়ের করেন তিনি। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অপু ঘোষ সন্ধায় বলেন, মামলার অপর আসামি ব্যাংক ম্যানেজারের ছোট বোন জান্নাতুল নাঈম সাথীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।