সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্নশিপ চালুর তাগিদ দিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

জেসিআই ঢাকা ইন্ডিপেন্ডেন্ট আয়োজিত নীতি সংলাপ ‘উন্নত কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরিতে তরুণ সমাজের দক্ষতা বৃদ্ধি’ শীর্ষক একটি অনুষ্ঠানে তিনি এই তাগিদ দেন। গত ৩১ জুলাই সন্ধ্যায় ৭টায় অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয় এই সংলাপ।

এই আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। প্যানেলিস্ট ছিলেন লন্ডনের ইলফোর্ড টাউনের কাউন্সিলর সৈয়দা সায়মা আহমেদ এবং ব্র্যাকের স্ট্র্যাটেজি- বিজনেস ডেভেলপমেন্টের প্রধান তাসমিয়াহ রহমান।

সংলাপের সভাপতি ছিলেন জেসিআই ঢাকা ইন্ডিপেন্ডেন্টের প্রেসিডেন্ট তাসনুভা আহমেদ। 

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, তরুণ প্রজন্মের দক্ষতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে পাবলিক এবং প্রাইভেট সকল ক্ষেত্রে ইন্টার্নশিপের সুযোগকে উৎসাহিত করা হবে।

সভায় বক্তারা বলেন, জাতীয় যুব নীতিমালা (২০০৩) অনুযায়ী, চাকরির ক্ষেত্র হ্রাস পাওয়ায় ১৮-৩৫ বছর বয়সীরা বিশেষ সঙ্কটের মুখোমুখি হচ্ছে। নীতিমালা পরিবর্তন এবং বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মের দক্ষতা বৃদ্ধি ও নতুন চাকরির সুযোগ তৈরির দিকে গুরুত্ব দিয়ে ব্যবহারিক নীতিমালা গঠনের এখনই উপযুক্ত সময়।

এ বিষয়ে শাহরিয়ার আলম বলেন, বাংলাদেশের একটি বিশাল জনগোষ্ঠী বর্তমানে তরুণ এবং কর্মক্ষম। কিন্তু প্রজন্মের এই পার্থক্য ধীরে ধীরে কমছে। ২০৪৭ সালের পর এ দেশের জনগোষ্ঠীর বেশির ভাগ অংশই হবেন প্রবীণ। আমাদের দায়িত্ব, এই ১৭ বছরের মধ্যে তরুণদের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ দেওয়ার মাধ্যমে একটি শক্তিশালী অর্থনীতি গড়ে তোলা যাতে পরবর্তীতে এই প্রবীণ গোষ্ঠীকে যথাযথ সুযোগ-সুবিধা দেওয়া যায়।

জেসিআই ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সী তরুণ পেশাজীবী ও নেতৃত্ব স্থানীয়দের নিয়ে গঠিত একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের সেইন্ট লুইসে এর সদর দফতর অবস্থিত। বর্তমানে ১৮টি স্থানীয় অধ্যায় ও প্রায় ৭০০ সদস্য নিয়ে জেসিআই বাংলাদেশ জাতীয় পর্যায়ে সমাজ ও সম্প্রদায়ের সেবায় কাজ করে যাচ্ছে।